‌‌‘তৃণমূল ঐক্যবদ্ধ থাকলে আওয়ামী লীগ হ্যাট্রিক জয় করবে’

তৃণমূলকে ঐক্যবদ্ধ করার আহ্বান জানিয়ে আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক এনামুল হক শামীম বলেছেন, দলে নেতৃত্বের প্রতিযোগিতা থাকতে পারে। কিন্তু কোন অন্তঃকোন্দল থাকা চলবে না। দলের স্বার্থে, নৌকার জন্য সবাইকে ঐক্যবদ্ধ থাকতে হবে। সামনে নির্বাচনে মাদার অব হিউম্যানিটি জননেত্রী শেখ হাসিনাকে তৃতীয়বারের মতো ক্ষমতায় আনতে হবে। এ জন্য মানুষের কাছে যেতে হবে। ভোট বাড়াতে হবে। এ দায়িত্ব তৃণমূল আওয়ামী লীগকেই নিতে হবে। তৃণলমূল ঐক্যবদ্ধ থাকলে হ্যাট্রিক জয় করবে আওয়ামী লীগ।

বৃহস্পতিবার দুপুরে ধানমন্ডিতে লক্ষ্মীপুরের রামগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের নবনির্বাচিত নেতাকর্মীদের সঙ্গে মতবিনিময়কালে তিনি এসব কথা বলেন।

এনামুল হক শামীম বলেন, আগামী নির্বাচনে ষড়যন্ত্রের মাধ্যমে ক্ষমতায় আসতে বিএনপি তত্পর হয়ে উঠেছে। তাই দলটির শীর্ষ নেতারা বলছেন, আওয়ামী লীগ নাকি ২৫টি আসন পাবে না। কিন্তু বিএনপির বন্ধুদের বলতে চাই, বাংলার গণমানুষের দল আওয়ামী লীগকে নিয়ে আপনারা যে ভবিষৎ বাণী করেন, তার উল্টো হয়। আপনাদের দলের নেত্রী বেগম খালেদা জিয়া জননেত্রী শেখ হাসিনাকে উদ্দেশ্য করে বলেছিলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী তো দূরের কথা বিরোধী দলীয় নেত্রীও হতে পারবে না। আর ৩০টির বেশি আসন পাবে না’। এই বাণী উল্টো হয়েছিল। ২০০৮ সালে বিএনপি ২৯টি আসন পেয়েছিল। সে কারণে বলছি, আমরা কতটি আসন পাবো না, পাব, সেটা নির্ধারণ করবে দেশের জনগণ। আপনারা নির্বাচনে আসুন, ষড়যন্ত্র করবেন না।

তৃণমূল আওয়ামী লীগকে শক্তিশালী করার নির্দেশ দিয়ে চট্টগ্রাম বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক শামীম বলেন, আওয়ামী লীগ যখনই ঐক্যবদ্ধ হয়, তখন যেকোন পরিস্থিতি মোকাবিলা করেই বিজয়ী হয়। ২০০৮ সালে এবং ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারি নির্বাচন তার প্রমাণ। ৫ জানুয়ারি নির্বাচন ঘিরে বিএনপি-জামায়াতের ষড়যন্ত্র ছিল। তৃণমূল আওয়ামী লীগ ঐক্যবদ্ধ ছিলো বলেই আমরা নির্বাচনের মাধ্যমে ক্ষমতায় আসতে পেরেছি। এবারও অতীতের মতো ঐক্যবদ্ধ থাকতে হবে। দলকে টানা তৃতীয় বারের মতো ক্ষমতায় আনতে হবে। তৃণমূল ঐক্যবদ্ধ থাকলে হ্যাট্রিক জয় করব।

তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশ আজকে উন্নয়নের মহাসড়কে। বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা তার মেধা, সততা, দক্ষতা ও পরিশ্রম দিয়ে দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছেন। তিনি শুধু বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী নন, তিনি এখন বিশ্বনেত্রী। শেখ হাসিনা ক্ষমতায় থাকা মানেই গণতন্ত্র, স্বাধীনতা সার্বভৌমত্ব বজায় রাখা, বিশ্বের বুকে উন্নত বাংলাদেশ। কাজেই আগামী নির্বাচনে জননেত্রী শেখ হাসিনাকে ক্ষমতায় আনতে হবে। দেশকে এগিয়ে নিয়ে যেতে হবে। মুক্তিযুদ্ধের মাধ্যমে আমরা দেশকে স্বাধীন করেছি। স্বাধীনতার পরাজিত শক্তি যেন ক্ষমতায় না আসতে পারে সে জন্য কাজ করতে হবে।

এসময় উপস্থিত ছিলেন লক্ষ্মীপুর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি গোলাম ফারুক পিংকু, রামগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি অ্যাডভোকেট সফিক মাহমুদ পিন্টু, সাধারণ সম্পাদক ও উপজেলা চেয়ারম্যান আ ক ম রুহুল আমিন, আওয়ামী লীগ নেতা সহিদুল্লা, এম এ মমিন পাটওয়ারী, পৌর আওয়ামী লীগ সভাপতি মেয়র আবুল খায়ের পাটওয়ারী, সাধারণ সম্পাদক বেলাল আহম্মদ প্রমুখ।

মানবকণ্ঠ/এইচএইচ/এফএইচ