হাতিয়ার ইউপি চেয়ারম্যানকে বরখাস্ত

আজাদ

নোয়াখালীর বিচ্ছিন্ন দ্বীপ উপজেলা হাতিয়ার চরঈশ্বর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আবদুল হালিম আজাদকে তার পদ থেকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। স্থানীয় এমপি আয়েশা ফেরদৌসের বাসভবনে ও পুলিশের উপর হামলা ঘটনা এবং অস্ত্র আইনে দায়েরকৃত মামলার অভিযোগপত্র আদালতে গৃহীত হওয়ার প্রেক্ষিতে স্থানীয় সরকার বিভাগ এ সিদ্ধান্ত নিয়েছে বলে জানা গেছে।

বুধবার রাতে স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের স্থানীয় সরকার বিভাগের উপ-সচিব মো. মাহবুবুর রহমান স্বাক্ষরিত এক প্রজ্ঞাপনের মাধ্যমে এ বিষয়ে জেলা প্রশাসনকে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিতে বলা হয়েছে।

প্রজ্ঞাপন সূত্রে জানা যায়, নোয়াখালীর হাতিয়ার উপজেলার ৫নং চরঈশ্বর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আবদুল হালিম আজাদের বিরুদ্ধে জিআর নং- নোয়াখালীর হাতিয়া থানায় দায়েরকৃত জিআর নং- ৩২০/১৬, জিআর নং- ২২৩/১৬ এবং জিআর নং- ২৬৫/১৬ এর অভিযোগপত্র আদালত কর্তৃক গৃহীত হওয়ায় এবং ওই ইউপি চেয়ারম্যান কর্তৃক ক্ষমতা প্রয়োগে প্রশাসনিক দৃষ্টিকোণে সমীচীন না হওয়ায় স্থানীয় সরকার (ইউনিয়ন পরিষদ) আইন, ২০০৯ এর ধারা ৩৪ উপধারা (১) অনুযায়ী তাকে তার স্বীয় পদ থেকে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করা হয়েছে।

প্রসঙ্গত, র‌্যাব-১১ ও হাতিয়া কোস্টগার্ড গত ৭ সেপ্টেম্বর নোয়াখালীর হাতিয়ায় হত্যা মামলাসহ ২৪ মামলার আসামি চরঈশ্বর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আবদুল হালিম আজাদকে বিপুল পরিমাণ আগ্নেয়াস্ত্রসহ গ্রেফতার করে।

মানবকণ্ঠ/এমএসএস/এসএস