সূর্য

সূর্য সৌরজগতের কেন্দ্রের খুব কাছে অবস্থিত তারাটির নাম। প্রায় আদর্শ গোলক আকৃতির এই তারা প্রধানত প্লাজমা তথা আয়নিত পদার্থ দিয়ে গঠিত, যার মধ্যে জড়িয়ে আছে চৌম্বক ক্ষেত্র। এর ব্যাস প্রায় ১৩ লাখ ৯২ হাজার কিলোমিটার, যা পৃথিবীর ব্যাসের ১০৯ গুণ, ভর প্রায় ২ ী ১০৩০ কিলোগ্রাম তথা পৃথিবীর ভরের ৩ লাখ ৩০ হাজার গুণ। এই ভর সৌরজগতের মোট ভরের শতকরা ৯৯.৮৬ ভাগ। সূর্যের প্রধান গাঠনিক উপাদান হাইড্রোজেন। আসলে মোট ভরের তিন-চতুর্থাংশই হাইড্রোজেন। হাইড্রোজেনের পরেই সবচেয়ে প্রাচুর্যময় মৌল হিলিয়াম। হিলিয়ামের চেয়ে ভারি মৌল সূর্যের মাত্র ১.৬৯% ভরের জন্য দায়ী। তারপরও এদের সম্মিলিত ভর পৃথিবীর ভরের ৫,৬২৮ গুণ। এই ভারি মৌলগুলোর মধ্যে রয়েছে অক্সিজেন, কার্বন, নিয়ন, লোহা ইত্যাদি।
তারার শ্রেণীবিন্যাস করার একটি সুনির্দিষ্ট পদ্ধতি রয়েছে, যা অনুসারে সূর্য জিটুভি শ্রেণীর মধ্যে পড়ে। অনেক সময় একে হলদে বামন ডাকা হয়। কারণ তার তড়িৎচুম্বকীয় বিকিরণের তীব্রতা সবচেয়ে বেশি বর্ণালির হলুদ-সবুজ অংশে। সূর্যের রং সাদা হলেও ভূপৃষ্ঠ থেকে একে হলুদ দেখায় পৃথিবীর বায়ুুমণ্ডলে নীল আলোর বিচ্ছুরণের কারণে।
সূত্র: ইন্টারনেট