সূচক বাড়লেও লেনদেন কমেছে উভয় বাজারে

দেশের প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) এবং অপর শেয়ারবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) সপ্তাহের প্রথম কার্যদিবস রোববার সবক’টি মূল্যসূচক বেড়েছে। এ নিয়ে টানা দুই কার্যদিবস সবকটি মূল্য সূচক বাড়ল। সূচক বাড়লেও দুই বাজারেই কমেছে লেনদেনের পরিমাণ।

মূল্য সূচকের উত্থানের পাশাপাশি উভয় বাজারে লেনদেন হওয়া বেশিরভাগ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার দাম বেড়েছে। ডিএসইতে লেনদেন হওয়া ১৬৮টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ার দাম বেড়েছে। বিপরীতে দাম কমেছে ১১৩টির। আর দাম অপরিবর্তিত রয়েছে ৫৪টির। বাজারটিতে লেনদেন হয়েছে ৩৪৪ কোটি ৩৫ লাখ টাকা। আগের দিন লেনদেন হয় ৩৫৮ কোটি ৯৬ লাখ টাকা। সে হিসাবে লেনদেন আগের দিনের তুলনায় কমেছে ১৪ কোটি ৬১ লাখ টাকা। এ নিয়ে টানা দুই কার্যদিবস বাজারটিতে লেনদেন কমল। দিনের লেনদেন শেষে ডিএসইর প্রধান মূল্য সূচক ডিএসইএক্স আগের দিনের তুলনায় ২৪ পয়েন্ট বেড়ে ৬ হাজার ১৪৭ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে। অপর দুটি মূল্য সূচকের মধ্যে ডিএসই-৩০ আগের দিনের তুলনায় ১৯ পয়েন্ট বেড়ে ২ হাজার ২৬০ পয়েন্টে অবস্থান করছে। আর ডিএসই শরিয়াহ সূচক ৬ পয়েন্ট বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১ হাজার ৪১০ পয়েন্টে। টাকার অঙ্কে ডিএসইতে সব থেকে বেশি লেনদেন হয়েছে স্কয়ার ফার্মাসিটিক্যালের শেয়ার। কোম্পানিটির ২৮ কোটি ৩৩ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। লেনদেনে দ্বিতীয় স্থানে থাকা ইফাদ অটোসের ১৫ কোটি ১৬ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। ১৪ কোটি ৬৯ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেনে তৃতীয় স্থানে রয়েছে ন্যাশনাল ব্যাংক। লেনদেনে এরপর রয়েছে- গ্রামীণফোন, গোল্ডেন হার্ভেস্ট, দেশবন্ধু পলিমার, বিডি থাই, ওয়েস্টার্ন মেরিন শিপইয়ার্ড, প্যারামাউন্ট টেক্সটাইল এবং ন্যাশনাল টিউবস।

অপর শেয়ারবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের সার্বিক মূল্য সূচক সিএসসিএক্স ৪৯ পয়েন্ট বেড়ে ১১ হাজার ৪৪০ পয়েন্টে অবস্থান করছে। বাজারটিতে লেনদেন হয়েছে ১৭ কোটি ৫৭ লাখ টাকা। আগের দিন লেনদেন হয় ২৪ কোটি ২৪ লাখ টাকা। লেনদেন হওয়া ২৩৫টি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে ১১৩টির শেয়ার দাম বেড়েছে। বিপরীতে দাম কমেছে ৮০টির। আর দাম অপরিবর্তিত রয়েছে ৪২টির।

মানবকণ্ঠ/এসএস