সুখে-দুঃখে বাংলাদেশের পাশে থাকবে ভারত: হাইকমিশনার

বাংলাদেশে নিযুক্ত দেশটির হাইকমিশনার হর্ষবর্ধন শ্রিংলা বলেছেন, সুখে-দুঃখে সব পরিস্থিতিতে বাংলাদেশের পাশে রয়েছে প্রতিবেশী দেশ ভারত। আগামী দিনেও এভাবে পাশে থাকবে।

শনিবার বিকেলে বরিশাল শের-ই বাংলা মেডিকেল কলেজের অডিটোরিয়ামে মুক্তিযোদ্ধা একাডেমি ট্রাস্ট আয়োজিত মুক্তিযোদ্ধা বৃত্তি চেক বিতরণ অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন।

তিনি আরো বলেন, মুক্তিযুদ্ধের সময় মুক্তিযোদ্ধাদের সঙ্গে ভারতের বাহিনী একত্রিত হয়ে যুদ্ধ করে বাংলাদেশকে স্বাধীন করেছিল। সেই সম্পর্ক এখন আরও শক্ত হয়েছে। বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির প্রয়াসে এই সম্পর্ক অনবদ্য উচ্চতায় পৌঁছে গেছে।

শ্রিংলা বলেন, ভারত এখন বাংলাদেশে ছয় হাজার কোটি টাকার প্রকল্প বাস্তবায়ন করছে। পাবনা, পটুয়াখালী, জামালপুর, কক্সবাজার, নোয়াখালী ও যশোরে ৫০০ বেডের হাসপাতাল এবং যৌথভাবে বন্দর, সড়ক, রেলপথ ও অন্যান্য অবকাঠামো উন্নয়নের কাজ করছে ভারত।

হাইকমিশনার বলেন, ২০১৫ সালে ভারতের প্রধানমন্ত্রী বাংলাদেশে সফরে এসে বলেছিলেন, পেহলে তো হাম পাস পাস থে, আব হাম সাথ সাথ হে। ভারত ও বাংলাদেশের মধ্যে চমৎকার সম্পর্ক বিরাজ করছে। বর্তমানে ভারত ও বাংলাদেশ পৃথিবীর উন্নয়নমূলক দেশগুলোর মধ্যে জায়গা করে নিয়েছে।

মুক্তিযোদ্ধা একাডেমি ট্রাস্টের চেয়ারম্যান ড. আবুল আজাদের সভাপতিত্বে চেক বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন বরিশাল সিটি করপোরেশনে নবনির্বাচিত মেয়র সেরনিয়াবাত সাদিক আব্দুল্লাহ। অতিথি ছিলেন মুক্তিযুদ্ধ চলাকালীন ৯নং সেক্টর কমান্ডার ক্যাপ্টেন মাহফুজ আলম বেগ, সংসদ সদস্য অ্যাডভোকেট তালুকদার মো. ইউনুস, পঙ্কজ দেবনাথ, শের ই বাংলা একে ফজলুল হকের নাতি ফাইয়াজুল হক রাজু, বরিশাল মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি গোলাম আব্বাস চৌধুরী দুলাল, বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশের কমিশনার মো. মোশাররফ হোসেন, বরিশাল রেঞ্জের অতিরিক্ত ডিআইজি আজাদ মিয়া, বরিশাল জেলা প্রশাসক মো. হাবিবুর রহমান প্রমুখ।

মানবকণ্ঠ/এএএম