সিল মেরে বাক্স ভরে রাখার অভিযোগে ভোট স্থগিত

পঞ্চম উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের তৃতীয় ধাপে অনুষ্ঠিত উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে কিশোরগঞ্জের কটিয়াদীর সব কেন্দ্রের ভোটগ্রহণ স্থগিত করা হয়েছে। এ ঘটনায় অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. শফিকুল ইসলাম ও কটিয়াদী মডেল থানার ওসি মো. শামসুদ্দিনকে প্রত্যাহার করা হয়েছে।

শনিবার রাতে ভয়ভীতি দেখিয়ে ব্যালট পেপারে সিল মেরে বাক্স ভরে রাখা ও অনিয়মের অভিযোগে এ ভোটগ্রহণ স্থগিত করা হয়।

রোববার কটিয়াদী উপজেলা নির্বাহী অফিসার ইসরাত জাহান কেয়া, কিশোরগঞ্জ জেলা নির্বাচন অফিসার ও রিটার্নিং অফিসার মো. তাজুল ইসলাম জানান, রাতেই কতিপয় দুষ্কৃতকারী ভয়ভীতি দেখিয়ে ব্যালট পেপারে সিল মেরে বাক্সে ভরে রাখার অভিযোগে প্রথমে পাঁচটি কেন্দ্র ভোটগ্রহণ বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে।

এর পর নির্বাচন সচিবের নির্দেশে কটিয়াদী উপজেলার মোট ৮৯ কেন্দ্রের সব কার্যক্রম স্থগিত করে বন্ধ ঘোষণা করায় এখন আর এ নির্বাচন হচ্ছে না। প্রিসাইডিং কর্মকর্তারা কেন্দ্র থেকে ভোটগ্রহণ বন্ধ করে মালামাল ও জনবল নিয়ে ফিরতে শুরু করেছেন।

প্রসঙ্গত, পঞ্চম উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের তৃতীয় ধাপে ২৫ জেলার ১১৭টিতে আজ রোববার ভোটগ্রহণ চলছে। সকাল ৮টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত টানা ভোটগ্রহণ চলবে। এসব উপজেলায় ৩৪০ চেয়ারম্যান, ৫৮৪ জন ভাইস চেয়ারম্যান ও ৩৯৯ জন নারী ভাইস চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

মানবকণ্ঠ/এএম