‘সারা’ এবার আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলায়

‘সারা’ এবার আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলায়

আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলায় অন্যতম আকর্ষণ হিসেবে রয়েছে ফ্যাশন হাউজ ‘সারা’ লাইফস্টালের প্রিমিয়ার স্টল। বাণিজ্য মেলার ৫৩ নং প্রিমিয়ার স্টলে পাওয়া যাবে ‘সারা’ লাইফস্টাইলের সকল পণ্য। সাশ্রয়ী মূল্যে সারা’র এই স্টলে আপনি পাবেন উন্নতমানের বিভিন্ন পোশাকের অভিন্ন আয়োজন এবং সঙ্গে আছে আকর্ষনীয় অফার।

বাণিজ্য মেলায় সারা’র শপে প্রাধান্য দেয়া হচ্ছে শীতকালীন পোশাকের সমারোহকে। ফ্যাশন এবং উষ্ণতার মিশ্রণে বাহারি পোশাকের এই আয়োজনে থাকছে প্রাপ্তবয়স্ক এবং শিশুদের জন্য এক্সক্লুসিভ ডিজাইন এর শীতকালীন পোশাক। শীতের ফ্যাশনকে নতুন মাত্রা দিয়ে সারা’র সংগ্রহে থাকছে ম্যানজ এন্ড ওমেন্স বোম্বার জ্যাকেট, ম্যানজ এন্ড ওমেন্স কুইল্টেড ভেস্ট, ম্যানজ এন্ড ওমেন্স পাফার জ্যাকেট, বিভিন্ন রকমের হুডি, ম্যানজ ক্যাজুয়াল ব্লেজার, ফ্ল্যানেল শার্টস, ফ্ল্যানেল স্কার্ফ, কিডস পাফার জ্যাকেট এবং কিডস হুডিজ। মাত্র ৫০০ টাকা থেকে শুরু করে ২ হাজার টাকার মধ্যেই এসকল পোশাক আপনি পাবেন সারা’তে।

শুধুমাত্র উষ্ণতাই নয়, শীতকালীন পোশাকে ফ্যাশন, গুনগত মান, স্বাচ্ছন্দতা এবং সাশ্রয়ী মূল্যের চমৎকার সমন্বয়ে সারার এই আয়োজনে আরো থাকছে ওয়েস্টার্ন টপস, এথনিক টপস, এক্সক্লুসিভ পার্টি ড্রেস, টি শার্ট, লেগিংস, কার্গো প্যান্ট, জগার্স, কেমো প্যান্ট, চিনো প্যান্ট, ডেনিম ফর ম্যানজ, ওমেনজ অ্যান্ড কিডস, শ্রাগস, লন, পালাজো ফর লেডিস এন্ড গার্লস, পোলো শার্ট, পাঞ্জাবি ইত্যাদি। এছাড়াও শিশুদের জন্যও থাকছে বিভিন্ন ধরণের ট্রেন্ডি পোশাকের আয়োজন।

২০১৮ সালের মে মাস থেকে ‘‘সারা’’ যাত্রা শুরু করে। ঢাকার মিরপুর-৬ এ অবস্থিত (স্টেডিয়াম এর ৫ নং গেটের বিপরীতে) ‘সারা’র আউটলেট সহ বসুন্ধরা সিটির লেভেল ১, ব্লক এ এর ৪০ এবং ৫৪ নং শপটিতেও পাওয়া যাবে ‘সারা’র সকল পোশাক।

মিরপুর এবং বসুন্ধরা সিটিতে ‘সারা’র আউটলেট ছাড়াও অনলাইনেও ‘সারা’র পোশাক অর্ডার করে বিনামূল্যে ঢাকার ভেতরে হোম ডেলিভারি পাওয়া যাবে। সেক্ষেত্রে, সারা এর ওয়েবসাইট (www.saralifestyle.com.bd), ফেসবুক পেজ (www.facebook.com/saralifestyle.bd) এবং ইন্সটাগ্রাম (sara_lifestyle_ltd) থেকে ক্রেতারা অর্ডার করতে পারবেন।

‘সারা’ বাংলাদেশের রফতানিমুখী পোশাক শিল্পের সঙ্গে প্রত্যক্ষভাবে জড়িত স্নোটেক্স আউটারওয়্যার লিমিটেডের সহযোগী প্রতিষ্ঠান। সামর্থ্যের মধ্যে গুণগত মানের পোশাক ক্রেতার হাতে পৌঁছে দেয়ার লক্ষ্য নিয়েই ‘সারা’ লাইফস্টাইল যাত্রা শুরু করে।

উল্লেখ্য, ‘স্নোটেক্স’ ২০০০ সালে বায়িং হাউজের মাধ্যমে যাত্রা শুরু করে। ২০০৫ সালে নিজেদের প্রথম কারখানা হিসেবে প্রতিষ্ঠা করে স্নোটেক্স অ্যাপারেলস। সেই সাফল্যের ধারাবাহিকতায় ২০১১ সালে ‘কাট অ্যান্ড সিউ’ এবং ২০১৪ সালে ‘স্নোটেক্স আউটারওয়্যার’ প্রতিষ্ঠা করা হয়। আজকের ‘স্নোটেক্স’ হয়ে উঠেছে তিনটি বড় কারখানার একটি প্রতিষ্ঠান রূপে। ‘সারা’ তাদের প্রথম লাইফস্টাইল ব্র্যান্ড। স্নোটেক্স আউটারওয়্যার গ্রিন ফ্যাক্টরি হিসেবে পুরস্কৃত হয়েছে ইউএসজিবিসির লিড গোল্ড সার্টিফিকেটে। এটি এখন ১১ হাজারের বেশি মানুষের কর্মসংস্থান করে যাচ্ছে। যেটি ২০২০ সালের মধ্যে প্রায় ১৮ হাজার মানুষের কর্মসংস্থানের জায়গা হয়ে দাঁড়াবে। এছাড়াও ঢাকার বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ স্থানসহ দেশের বিভিন্ন জেলায় ‘সারা’ লাইফস্টাইল অচিরেই কয়েকটি শাখা খুলবে।

মানবকণ্ঠ/এসএস