সারার রূপ রহস্য ফাঁস!

তারকা সন্তান হিসেবে সারা আলি খান ইতোমধ্যেই সবার নজর কাড়তে সক্ষম হয়েছেন। এতদিন তার পরিচিতি ছিল- সইফ আলি খান ও অমৃতা সিংহের মেয়ে তিনি। তবে খুব শিগগিরই নতুন পরিচয়ে পরিচিত হতে যাচ্ছেন সারা। পরিচালক অভিষেক কাপুরের হাত ধরে এ বছরেই বলিউডে অভিষেক হতে যাচ্ছে তার। তবে তার এই দর্শক প্রিয়তার পেছনের রহস্য ‘সুন্দর চেহারা’। কিন্তু এই তারকা কন্যার সুন্দরী হয়ে ওঠার গল্পটা একটু ভিন্ন।

বলিউডে তারকাদের উপর একটা চাপ থাকে। আর তা হচ্ছে ‘সব সময় সুন্দর লাগতে হবে’। আর এই কারণে অনেক তারকাই প্লাস্টিক সার্জারির সাহায্য নেন। সুন্দর দেখতে শরীরের উপর চলে ছুরি কাঁচি।

সম্প্রতি ‘কফি উইথ করণ’-এ এসে এ কথা স্বীকার করলেন সাইফ আলি খান কন্যা সারা আলি খান। যদিও এই অংশগুলো এডিট টেবিলে বাদ পড়ে যায়। সারার সেই সব কথাবার্তার আনকাট অংশগুলো প্রকাশ্যে আনা হয়েছে। সারাকে প্রশ্ন করা হয়, তিনিও কি সুন্দর হওয়ার চাপে পড়ে প্লাস্টিক সার্জারির সাহায্য নিয়েছেন?

উত্তরে সারা বলেন, ‘সুন্দর হওয়ার চাপের কথা যদি বলা হয় তাহলে আমি বলব, হ্যাঁ। চাপ আছে, সেটা মেনে নিতেই হচ্ছে, আমরা এই যুগের মধ্য দিয়েই এগিয়ে চলেছি। তবে আমি বলবো- এই চাপের মধ্যেও নিজের মনের শক্তি বাড়িতে তুলতে হবে। নিজের প্রকৃত সৌন্দর্যের উপর ভরসা রাখতে হবে। মনের মধ্যে দৃঢ়তা রাখতে হবে, জানতে হবে, তুমি এমনিই সুন্দর।’

সারার কথায়, ‘আমি এটা বলছি না যে তোমার ওজন বেড়ে যদি ৯৬ কেজিতে পৌঁছয়, তাতেই স্বচ্ছন্দ থাকতে হবে, ওজন বাড়লে আমি বলব অবশ্য়ই জিমে যেতে। তবে চাপের মুখে কিছু না করাই ভালো। আমার মনে হয় তুমি যেমন তাতেই যদি স্বচ্ছন্দ হও, তাহলে বহু মানুষের প্রত্যাশার চাপকেও তুমি নিয়ন্ত্রণ করতে পারবে।’

তিনি আরও বলেন, ‘বলিউডে এমন বহু মানুষ আছেন যাঁরা তোমায় নিরাপত্তহীনতায় ভোগার জায়গা তৈরি করে দেবে। তবে তাতে কিছুই যায় আসে না। তুমি যেমন তা নিয়ে আত্মবিশ্বাসী থাকতে হবে। তুমি মোটা বলে তোমাকে আক্রমণও করতে পারে তবে তবে তোমাকে নিজের জায়গায় ঠিক ঠাকতে হবে।’

মানবকণ্ঠ/এফএইচ

Leave a Reply

Your email address will not be published.