সময় বাঁচিয়ে কাজ করবেন…

সময়ের অভাবে আমরা অনেক কাজ সঠিকভাবে করতে পারি না। প্রতিদিন কত দরকারী কাজ জমে যায়। প্রতিদিন এত কাজ করা হচ্ছে তবুও কাজ শেষ হয় না প্ল্যানিং মতো। সময়ের সঙ্গে সঙ্গে কাজের গতি না মিললে কিন্তু সঠিক সময়ের মধ্যে কাজ সম্পূর্ণ করা সম্ভব হবে না কখনোই। প্রতিদিন আপনি কর্মক্ষেত্রে সময় পাচ্ছেন ৮ ঘণ্টা। এর মধ্যেই আপনাকে নিয়ম অনুযায়ী, কাজের গুরুত্ব অনুযায়ী কাজগুলো সম্পন্ন করতে হবে। নতুবা সপ্তাহ শেষে মাসের শেষে আপনার ওপর অতিরিক্ত কাজের চাপ পড়ে যাবে। সময় বাঁচিয়ে যেভাবে আপনাকে কাজগুলো করতে হবে আসুন জেনে নেই।
বাড়তি সময় নিয়ে কাজ করা আপনার প্রডাকটিভিটি বাড়ায় না, বরং কমায়। নির্দিষ্ট সময়ের মাঝে আপনার কাজ গুছিয়ে নিন। আপনি হয়তো ভাবছেন বেশিক্ষণ কাজ করে কাজগুলো গুছিয়ে নেবেন। এই ধারণাটা ভুল। কারণ একদিকে বেশি সময় দিয়ে অন্য দিকের সময় কমিয়ে দিচ্ছেন। এত অন্যান্য কাজ জমে যাচ্ছে। সেগুলো পরদিন আবার আরো বেশি চাপে রাখবে। আগের কাজকে আগে গুরুত্ব দিতে হবে। অন্যের অনুরোধ রাখতে গিয়ে নিজের কাজ জমিয়ে রাখা মোটেই উচিত নয়। অন্যকে সাহায্য করা সবসময় জরুরি কোনো বিষয় নয়। প্রত্যেকেরই নিজের কাজ নিজের করা উচিত।
আপনি অন্যকে সাহায্য করছেন। ভাবছেন, তার উপকার হচ্ছে। আসলে তা নয়। এভাবে মানুষটি পরনির্ভরশীল হচ্ছে। আপনার সময়কে, পরিকল্পনাকে নষ্ট করে এমন অনুরোধ রাখবেন না। বিনয়ের সঙ্গে ‘না’ বলুন দিন। কাজের দায়িত্ব ভাগ করে দিন। আপনি হয়তো চান আপনার সব কাজ পারফেক্ট হোক। আপনি ভাবছেন, অন্যকে কাজ দিলেই সে গরমিল করে ফেলবে। আসলে এক হাতে সব কাজ করতে গিয়ে আপনি কি সব কাজ পারফেক্ট করতে পারছেন?
আপনার কাজগুলো হাতেই গরমিল হয়ে যাচ্ছে। তার চেয়ে বরং কাজ ভাগ করে দিন। মনিটর করার দায়িত্ব নিন। ক্যারিয়ার ডেস্ক