শ্যামলীতে পুলিশ কনস্টেবলের কাণ্ড

নিজস্ব প্রতিবেদক :
নিজের মোটরসাইকেলের সঙ্গে ধাক্কা লাগায় একটি প্রাইভেট কার ও এর যাত্রীদের বেদম মারধর করেছেন পুলিশের কনস্টেবল আরিফ। গতকাল শুক্রবার দুপুরে রাজধানীর শ্যামলী মোড়ে এ ঘটনা ঘটে।
স্থানীয় ও পুলিশ সূত্র জানিয়েছে, সোহরাওয়ার্দী হাসপাতালের কার্ডিওলজি রেজিস্ট্রার ড. সাবরিনার ছেলে রাগীব মোহাম্মদ তিন বন্ধুকে নিয়ে গতকাল দুপুরে একটি প্রাইভেট কারে চড়ে বনানী যাচ্ছিলেন। শ্যামলীর মোড়ে রাগীবের গাড়ির সঙ্গে কনস্টেবল আরিফের মোটরসাইকেলে হালকা ধাক্কা লাগলে উভয়ের মধ্যে প্রথমে বাকবিতণ্ডা হয়। এক পর্যায়ে আরিফ তার হেলমেট দিয়ে রাগীবের গাড়ির সামনের ও পেছনের কাচ ভাঙচুর করেন। এরপর রাগীবের দুই বন্ধু নাহিন আর মাহাদিকেও মারধর করেন আরিফ। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, এক পর্যায়ে আশপাশের লোকজন কনস্টেবল আরিফকে আটক করে। খবর পেয়ে আদাবর থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে তাকে নিজেদের হেফাজতে নেয়। পরে এ ঘটনায় আদাবর থানায় দুই পক্ষের মধ্যে সমঝোতার চেষ্টা করে পুলিশ। ভুক্তভোগী রাগীবের আরেক বন্ধু অরিত্র জানান, আমাদের গাড়ির সঙ্গে আরিফের মোটরসাইকেলের ধাক্কা লাগার কারণে হেলমেট দিয়ে গাড়ি ভাঙচুর শুরু করেন পুলিশ সদস্য আরিফ। পরে হাতের লাঠি দিয়েও আমাদের আঘাত করেন তিনি।
আদাবর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আমিনুল ইসলাম বলেন, দুই পক্ষকে থানায় নিয়ে আসা হয়েছে। আমরা তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করেছি। ভুক্তভোগীরা পুলিশের চ্যান্সেরি বিভাগের কনস্টেবল আরিফের বিরুদ্ধে মামলা করলে আমরা তা নিয়ে আইনি ব্যবস্থা নেব।