শীতলক্ষ্যায় নিখোঁজ ৫ যাত্রীর লাশ উদ্ধার

শীতলক্ষ্যায় নিখোঁজ ৫ যাত্রীর লাশ উদ্ধার

নারায়ণগঞ্জে শীতলক্ষ্যা নদীতে যাত্রীবাহী ট্রলার থেকে পড়ে ৫ যাত্রী নিখোঁজ হওয়ার ঘটনায় একদিন পর তাদের লাশ নদীতে ভেসে উঠেছে। মঙ্গলবার সকাল ৯টায় শহরের নিতাইগঞ্জ ফায়ার খেয়াঘাট থেকে ২ জন এবং সেন্টাল খেয়াঘাটের ৫’শ গজ দূর থেকে দুইজনের মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়। এছাড়া সকাল সাড়ে ১০টায় একই স্থান থেকে আরো একজনের লাশ উদ্ধার করা হয়।

নিহতরা হলেন- মদনগঞ্জ শান্তিনগর এলাকার কালাচাঁন মিয়ার ছেলে দ্বীন ইসলাম (৩৫), মদনগঞ্জের ইসলামপুর এলাকার রমিজ উদ্দিনের ছেলে ইমন (২২), একই এলাকার আনোয়ার হোসেন ফালান (৩৫) ও ফকির চানের ছেলে জনি (২৫) ও ওসমান গণি (৩০)। তারা প্রত্যেকে শহরের নয়ামাটি এলাকার হোসিয়ারী শ্রমিক।

নারায়ণগঞ্জ ফায়ার সার্ভিস অ্যান্ড সিভিল ডিফেন্সের উপ সহকারী পরিচালক মামুনুর রশিদ জানান, রোবাবার রাতে সেন্ট্রাল ঘাট এলাকায় ট্রলারের ছাউনি ভেঙে নদীতে পড়ে ৫ যাত্রী নিখোঁজ হয়। এ ঘটনায় সোমবার সকাল থেকে বিকেল পর্যন্ত ফায়ার সার্ভিসের ১৩ ডুবুরি নদীতে তল্লাশি চালিয়ে কোনো লাশ খুঁজে পায়নি। মঙ্গলবার সকাল ৬টায় ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের ডুবুরিদলসহ ৮ জনের একটি দল শীতলক্ষ্যা নদীতে দ্বিতীয় দিনের মতো তল্লাশি শুরু করে। অভিযান শুরু ২ ঘণ্টা পর স্থানীয়রা দেখতে পায় সেন্ট্রাল খেয়াঘাট থেকে ৫’শ গজ দক্ষিণে দুটি লাশ ভাসছে ও নিতাইগঞ্জের ফায়ার খেয়াঘাট এলাকায় আরো দুটি লাশ ভাসছে। পরে সেগুলো উদ্ধার করে নৌ-পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়। এছাড়া সেন্ট্রাল খেয়াঘাটে যে স্থান থেকে দুটি লাশ পাওয়া গেছে ঠিক তার কাছাকাছি স্থান থেকে আরো একজনের লাশ উদ্ধার করা হয়।

ফায়ার সার্ভিসের উপ সহকারী পরিচালক উপ সহকারী পরিচালক মামুনুর রশিদ আরো জানান, উদ্ধার অভিযানের মধ্যেই শীতলক্ষ্যা নদীতে ৫ জনের লাশ ভেসে ওঠে। পরে ডুবুরি দল লাশগুলো উদ্ধার করে। আপাতত আর কেউ নিখোঁজ থাকার খবর না থাকলেও বিকেল পর্যন্ত শীতলক্ষ্যায় তল্লাশি চালানো হবে।

উল্লেখ্য, গত রোববার রাত সোয়া ৯টায় শহরের সেন্ট্রাল খেয়াঘাট থেকে ৮০ থেকে ১০০ জন যাত্রী নিয়ে মদনগঞ্জ খেয়াঘাটের উদ্দেশ্যে যাওয়ার সময় ট্রলারটি মোড় ঘুরাতে গিয়ে ঘাটের পাশে আগে থেকে লঙ্গর করে রাখা লঞ্চের সঙ্গে ধাক্কা লাগে। এসময় ট্রলারের উপরের ছাউনী ভেঙে কয়েকজন যাত্রী নদীতে পড়ে গেলেও সাঁতরে তীরে উঠে যায়। আর ঘাটে পাশে দাঁড়িয়ে থাকা অন্য ট্রলার দ্রুত অন্য যাত্রীদের উদ্ধার করলেও ৫ জন নিখোঁজ রয়েছে বলে দাবি করা হয়।

উদ্ধার করা লাশগুলো ময়নাতদন্তের জন্য নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

 

মানবকণ্ঠ/এসএস