শিক্ষার্থীদের ফাঁসাতে বাসে আগুন

রাজধানীর নর্দা-বসুন্ধরা এলাকায় সুপ্রভাত পরিবহনের একটি বাসের চাপায় বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অব প্রফেশনালসের (বিইউপি) এক শিক্ষার্থী নিহত হওয়ার ঘটনায় সড়ক অবরোধ করে আন্দোলন করছে তার সহপাঠীরা। আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের ফাঁসাতে এক হেলপার নিজেই সুপ্রভাত বাসে আগুন ধরিয়ে দেয় বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। মঙ্গলবার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। পরে শিক্ষার্থীদের উপস্থিতি টের পেয়ে পালিয়ে যায় ওই হেলপার।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে গুলশান থানার ওসি আবু বকর সিদ্দিকী বলেন, ‘একটি বাসে আগুন দেয়ার চেষ্টা করা হয়েছিল। বাসের হেলপার নিজেই বাসটিতে আগুন ধরিয়ে দেয় বলে শিক্ষার্থীরা অভিযোগ করেছেন। আগুন লাগার সঙ্গে সঙ্গে উপস্থিত শিক্ষার্থীরাই তা পানি দিয়ে নিভে ফেলে। এখনো শিক্ষার্থীরা রাস্তা অবরোধ করে আন্দোলন করছে। ঘটনাস্থলে পর্যাপ্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

প্রসঙ্গত, রাজধানীর প্রগতি সরণিতে বাসচাপায় আবরার আহমেদ চৌধুরী (২০) নামে বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অব প্রফেশনালস (বিইউপি) বিশ্ববিদ্যালয়ের এক শিক্ষার্থী নিহত হয়েছেন। আজ মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ৭টার দিকে রাস্তা পরাপারের সময় সুপ্রভাত পরিবহনের বাসাচাপায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। এ ঘটনার পর থেকে রাস্তা অবরোধ করে বিক্ষোভ করছেন শিক্ষার্থীরা। তাদের আন্দোলন এখনো চলছে। তাদের সঙ্গে যোগ দিয়েছে ইনডিপেনডেন্ট ইউনিভার্সিটির শিক্ষার্থীরাও। এ ঘটনায় বাসের চালক সিরাজুল ইসলামকে আটক করা হয়েছে। এ ছাড়া বাসটি জব্দ করে থানায় নেয়া হয়েছে।

মানবকণ্ঠ/এফএইচ