শিক্ষার্থীদের অধিকার আদায়ে কাজ করবে ছাত্রলীগ: শোভন

ঢাবিসহ সারাদেশে শিক্ষার্থীদের সকল সমস্যা সমাধানে ছাত্রলীগ কাজ করবে বলে জানিয়েছেন বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সভাপতি রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভন। তিনি বলেন, ছাত্রলীগ বঙ্গবন্ধুর নিজ হাতে গড়া সংগঠন। ছাত্রলীগ অসহায়-নির্যাতিত ছাত্রদের সংগঠন, ছাত্রলীগ মেধাবী ছাত্রদের সংগঠক, ছাত্রলীগ সকল ছাত্রদের সংগঠন। বিধায় ছাত্রদের যে কোনো সমস্যা হলেই সেসব সমস্যা সমাধানে রাজপথে নামবে ছাত্রলীগ।

ডাকসু নির্বাচন সামনে রেখে ৪৩ হাজার শিক্ষার্থীর চাহিদা পূরণ করতে সক্ষম ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে আধুনিক, মানসম্মত ডিজিটাল কেন্দ্রীয় লাইব্রেরি কমপ্লেক্সসহ আরো কয়েকটি দাবি নিয়ে রাজপথে নেমেছে ছাত্রলীগ। সোমবার বেলা সাড়ে ১২টার দিকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় লাইব্রেরি সামনে এসব দাবি নিয়ে মানববন্ধন করে সংগঠনটি।

মানববন্ধনে ছাত্রলীগের সভাপতি বলেন, আমরা যখন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি হই তখন আমাদের স্বপ্ন থাকে আকাশচুম্বী। আমরা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়কে প্রাচ্যের অক্সফোর্ড বলে ডাকি। কিন্তু ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি হয়ে আমাদের যে মেধা বিকাশ ঘটবে তার জন্য প্রচুর পড়াশোনার প্রয়োজন। কিন্তু আমরা বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হওয়ার পর পড়াশোনার সেই পরিবেশ পাই না।

তিনি অভিযোগ করে বলেন, আমাদের পড়ার জন্য সকালে ঘুম থেকে উঠে লাইব্রেরির সামনে লাইন ধরতে হয়। আমাদের হলে যে রিডিং রুম আছে সেখানে আবাসন সংকট। তাই আমাদের মেধার বিকাশ হচ্ছে না। আমাদের মেধার বিকাশ ঘটাতে হলে পড়াশোনার পরিবেশ দিতে হবে। বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের কাছে আমাদের আহ্বান লেখাপড়ার মান উন্নয়নের জন্য হলে যে সকল লাইব্রেরি ও রিডিং রুমে আবাসন সংকট আছে সেগুলো বৃদ্ধি করেন। লাইব্রেরির সিট সংখ্যা বৃদ্ধি করতে হবে।

তিনি বলেন, আজকে বাংলাদেশকে ডিজিটাল বাংলাদেশ বলা হয়। সেই ডিজিটাল বাংলাদেশে আমরা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের লাইব্রেরিকে ডিজিটালাইজড করতে চাই। আমরা প্রত্যেক বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রের জন্য একটি করে কার্ড ও সিট চাই। সেই কার্ড দিয়ে শিক্ষার্থী বই নিয়ে পড়াশোনা করবে। আমরা চাই ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় লাইব্রেরিতে সবকিছুই ডিজিটাল থাকবে।

তিনি আরো বলেন, দেশরত্ন শেখ হাসিনার মেয়ে সায়মা ওয়াজেদ পুতুল তিনি প্রতিবন্ধীদের জন্য সারা বিশ্বব্যাপী কাজ করে যাচ্ছে সেই জায়গায় আমাদের ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় অনেক প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থী ভর্তি হয়। তাদের লাইব্রেরিতে পড়াশোনার জন্য কোন রেলিং নেই। তাদের ওঠা-নামার জন্য কোনো লিফট নেই। আমরা আশাবাদি প্রতিবন্ধীরা যাতে বিশ্ববিদ্যালয়ের লাইব্রেরিতে এসে পড়াশোনা করতে পারে সেজন্য শিগগির ঢাবি’র কতৃপক্ষ প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।

ডাকসুর নির্বাচনে প্রার্থী হওয়া প্রসঙ্গে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে শোভন বলেন, বাংলাদেশ ছাত্রলীগ ডাকসু নির্বাচনের মনোনয়ন ফরম জননেত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে পরামর্শ করে সংগ্রহ করবে।

মানববন্ধনে ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানী, ঢাবি ছাত্রলীগের সভাপতি সনজিত চন্দ্র দাস, সাধারণ সম্পাদক সাদ্দাম হোসেনসহ ছাত্রলীগের সহস্রাধিক নেতাকর্মী উপস্থিত ছিলেন। মানববন্ধনে বিভিন্ন ধরনের প্লাকার্ড দেখা যায়, যেখানে লেখা ছিল; বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র হিসেবে অফিসিয়াল ইমেইল এড্রেস চাই, ডিজিটাল বাংলাদেশে আমাদের ঠিকানা হবে du.ac.bd, লাইব্রেরীর ডিজিটাল ডাটাবেসে, এক্সেস চাই ঘরে বসে, বিশ্বের সাথে তাল মিলিয়ে, সকল বই এর লেটেস্ট ভার্সন চাই, আন্তর্জাতিক মান বজায় রাখতে, জার্নাল গুলোতে ফ্রি এক্সেস নিশ্চিত করতে হবে, দ্রুতগতির ইন্টারনেট সার্ভিস নিশ্চিত করতে হবে, যখন প্রয়োজন তখনই লাইব্রেরীতে এক্সেস চাই, বিশ্ববিদ্যালয়ের মান উন্নয়ন ‌করতে হলে, স্বয়ংসম্পূর্ণ লাইব্রেরী চাই, প্রতিটি ছাত্রকে জায়গা দিতে পারে এমন ধারন ক্ষমতার লাইব্রেরী ভবন চাই, স্বল্পমূল্যে লাইব্রেরীর প্রতি তলায় ‌পর্যাপ্ত প্রিন্টার এবং ফটোকপি মেশিন চাই ইত্যাদি।

মানবকণ্ঠ/এফএইচ