রোহিঙ্গাদের ব্যাপারে কমিশন সতর্ক : সিইসি

মিয়ানমারে চলমান সহিংসতার কারণে নতুন করে যে রোহিঙ্গারা প্রবেশ করছে তারা যেন কোনোভাবেই ভোটার তালিকায় অন্তর্ভুক্ত না হতে পারে সে ব্যাপারে নির্বাচন কমিশন সতর্ক অবস্থায় আছে বলে জানিয়েছেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার কেএম নুরুল হুদা। তিনি বলেন, নতুন রোহিঙ্গাদের যে বায়োমেট্রিক করা হবে সেখানে নির্বাচন অফিস যেন সম্পৃক্ত থাকতে পারে সে ব্যাপারে আলোচনা হয়েছে। এ ছাড়া ৩০টি উপজেলায় যেখানে রোহিঙ্গারা রয়েছে বা তাদের সম্পৃক্ততা রয়েছে সেখানে আমাদের বিশেষ কমিটি নজরদারি করছে।

বুধবার টাঙ্গাইল জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে আগামী ২৪ সেপ্টেম্বর সারাদেশে অনুষ্ঠিতব্য জেলা পরিষদ, উপজেলা পরিষদ, ইউনিয়ন পরিষদের সাধারণ, স্থগিত ও উপনির্বাচন উপলক্ষে এক মতবিনিয়ম সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

এ সময় প্রধান নির্বাচন কমিশনার আরো বলেন, বিভিন্ন রাজনৈতিক দল আনুষ্ঠানিকভাবে আমাদের সঙ্গে সাক্ষাৎ করে নির্বাচনে অংশ গ্রহণ করবে বলে জানিয়েছে। এমনকি বিএনপি আনুষ্ঠানিকভাবে নির্বাচনে অংশ গ্রহণ করার কথা জানিয়েছে। তাদের রাজনৈতিক কার্যক্রমও বলে দিচ্ছে তারা নির্বাচনে অংশ নেবে। নির্বাচনে অংশ গ্রহণ করবে না এমনটা কেউ বলেনি।

আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সেনাবাহিনী মোতায়েন প্রসঙ্গে তিনি বলেন, অধিকাংশ রাজনৈতিক দল সেনাবাহিনী মোতায়েনের দাবি জানিয়েছে। তবে এ বিষয়ে সব দলের সঙ্গে এখনো আলোচনা করা সম্ভব হয়নি। এ বিষয়ে সব দলের সঙ্গে আলোচনা হলে জানা যাবে কীভাবে কোন পদ্ধতিতে তারা সেনাবাহিনী মোতায়েন দাবি করছে।

নির্বাচন কমিশনের সচিব হেলালুদ্দীনের সভাপতিত্বে মতবিনিময় সভায় অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন— টাঙ্গাইলের জেলা প্রশাসক খান মো. নুরুল আমীন ও পুলিশ সুপার মাহবুব আলম।

মানবকণ্ঠ/এফএইচ