রোনালদোর ডিএনএ চেয়েছে পুলিশ

২০০৯ সালে হোটেল রুমে এক নারীকে ধর্ষণের অভিযোগে করা মামলার তদন্তে ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোর ডিএনএ চেয়ে পরোয়ানা জারি করেছে লাস ভেগাস পুলিশ । ধর্ষণের অভিযোগকারী ক্যাথরিন মায়োরগার পোশাকে পাওয়া ডিএনএ’র সঙ্গে পর্তুগিজ ফরোয়ার্ডের ডিএনএ’র মিল আছে কিনা দেখতে চায় তারা।

গত বৃহস্পতিবার এক বিবৃতিতে লাস ভেগাস মেট্রোপলিটন পুলিশ বিভাগ এ তথ্য  নিশ্চিত করে। আর এই  পরোয়ানা ইতালির বিচারিক কর্তৃপক্ষের কাছে পরোয়ানা পাঠানো হয়েছে।

বিবৃতিতে লাস ভেগাস পুলিশ জানায়, অন্য সব যৌন হয়রানির মামলায় যেসব ব্যবস্থা নেওয়া হয়, এই মামলাতেও একই ব্যবস্থা নিচ্ছে লাস ভেগাস মেট্রোপলিটন পুলিশ কর্তৃপক্ষ। এ কারণে ডিএনএ নমুনা সংগ্রহ করা হচ্ছে।’ ইতালিয়ান কর্তৃপক্ষকে এ ব্যাপারে আনুষ্ঠানিকভাবে অনুরোধ করা হয়েছে জানায় তারা। এর চেয়ে বেশি তথ্য আর জানানো হয়নি।

অবশ্য রোনালদোর আইনজীবী পিটার এস ক্রিস্টিয়ানসেন একে স্বাভাবিক চোখে দেখছেন, রোনালদো সবসময় বলেছেন, এখনও তার একই কথা- ২০০৯ সালে লাস ভেগাসে যা ঘটেছে সেটা পারস্পরিক সমঝোতায়। তাই অভিযোগকারীর পোশাকে ডিএনএ থাকা অবাক হওয়ার মতো কিছু নয়। আর তদন্তের অংশ হিসেবে পুলিশের এই অনুরোধ স্বাভাবিক।

মায়োরগার অনুরোধে গত অক্টোবরে নতুন করে এই ধর্ষণের অভিযোগের তদন্ত শুরু করে পুলিশ। তবে রোনালদো সবসময় এই অভিযোগ প্রত্যাখ্যান করেছেন।

মানবকণ্ঠ/এআর