রেফারির উপর কেন ক্ষুব্ধ নেইমার?

এই সময়ের সবচেয়ে বড় তারকা নেইমার। তবে বল জালে প্রবেশ করাতে না পারায় ফুটবলপ্রেমীদেরকে বেশ আহত করেছেন এই তারকা। সুইজারল্যান্ডের কাছে ব্রাজিলের সমতা যেন মোটেও মেনে নেয়ার মত নয়। আলোচনা ও সমালোচনা চলছে ফুটবল পাড়ায়।

রোববার সাবেক বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন ব্রাজিল রাশিয়া বিশ্বকাপের গ্রুপ পর্বের ম্যাচে সুইজাল্যান্ডের সঙ্গে ১-১ গোলে লড়াই করেছে। রস্তভে অনুষ্ঠিত ম্যাচটিতে ব্রাজিলের হয়ে একমাত্র গোলটি করেন ফিলিপে কুটিনহো। আর সুইজাল্যান্ডের পক্ষে একমাত্র গোলটি করেন স্টিভেন জুবের।

তবে ১-১ গোলের ড্র নিয়ে মাঠ ছাড়লেও এই ম্যাচ নিয়ে চলছে চরম বিতর্ক। কারণ ব্রাজিলের পোস্টারবয় নেইমারের সঙ্গে যা করা হল সেটা নিঃসন্দেহে অপ্রত্যাশিত। সুইসদের এমন আচরণ হয়তো কেউই আশা করেনি। নেইমারকে নিয়ে সুইজারল্যান্ডের একটু বেশিই পরিকল্পনা থাকাটা স্বাভাবিক। তাই বলে এক ম্যাচে ১০ বার ফাউল! ম্যাচে ব্রাজিলের সব আক্রমণ ঠেকিয়ে দিয়েছে সুইজারল্যান্ড। আক্রমণভাগে নেইমার ছিল বলে তার সঙ্গেই কী ফাউল করা হয়েছে বেশি?

এর আগে ১৯৯৮ সালের বিশ্বকাপে ইংল্যান্ড-তিউনিশিয়া ম্যাচে ইংলিশ ফুটবলার আলান শিয়ারার সর্বোচ্চ ১১ বার ফাউলের শিকার হয়েছিলেন। এরপর ২০১৮ তে এসে নেইমার হলেন ১০ বার।

ফাউলের শিকার নিয়ে নেইমার কিছু না বললেও ক্ষুব্ধ রেফারির উপর। এ বিষয়ে ম্যাচের পরে সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, একটা ম্যাচে ফাউল হতেই পারে। কিন্তু এটা রেফারিকে দেখতে হবে। যদি সেটা না হয় তবে ভবিষ্যতে ফাউল করাটা স্বাভাবিক পর্যায়ে চলে যাবে।

তবে এবারের আসরে বেশ ব্যর্থতা বলা বড় দলগুলোর ভাগ্যে। প্রথমে আর্জেন্টিনার সঙ্গে ১-১ গোলে ড্র করলো নবাগত দল আইসল্যান্ড। এরপর গত আসরের চ্যাম্পিয়ন জার্মানিকে ১-০ গোলে হারিয়ে হারিয়ে দিয়েছে মেক্সিকো।

প্রসঙ্গত, গত ১৪ জুন রাশিয়া ও সৌদি আরবের মধ্যকার ম্যাচ দিয়ে শুরু হয় রাশিয়া বিশ্বকাপ। এবারের টুর্নামেন্টে মোট ৩২টি দল অংশ নিচ্ছে। আগামী ১৫ জুলাই অনুষ্ঠিত হবে ফাইনাল ম্যাচ। গত বিশ্বকাপ আসরে শিরোপা ঘরে তুলেছিল জার্মানি। আর রানার্স আপ হয়েছিল অন্যতম দল আর্জেন্টিনা।

মানবকণ্ঠ/এএএম