রায় নিয়ে এত লাফালাফি কেন: বিএনপিকে কাদের

সংবিধানের ষোড়শ সংশোধন বাতিলের রায় নিয়ে বিএনপির প্রতিক্রিয়াকে লাফালাফির সঙ্গে তুলনা করেছেন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

শনিবার কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে ছাত্রলীগের সমাবেশে তিনি বলেন, সুপ্রিম কোর্টের রায়ে বাংলাদেশের রাজনীতিতে অঘটনঘটনপটিয়সী, ডিগবাজির চ্যাম্পিয়ন মওদুদ আহমদের আনন্দে আমরা খুব একটা বিচলিত হইনি। কিন্তু মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, আপনি এত লাফালাফি করছেন কেন?

কাদের বলেন, বিএনপি আট বছরে আট মিনিটের জন্য আন্দোলন করতে পারেনি। পারেনি কারণ জনগণ তাদের সঙ্গে ছিল না। আজকে কোর্ট একটা রায় দিয়েছেন, মনে হচ্ছে জগাই-মধাই নৃত্য করছে। সুপ্রিম কোর্টের এই রায় নিয়ে বিএনপি ষড়যন্ত্র করছে দাবি করে তিনি বলেন, সেই স্বপ্ন কর্পুরের মতো উড়ে যাবে।

বিএনপি নেতা মওদুদ আহমদকে উদ্দেশ করে ওবায়দুল কাদের বলেন, মওদুদ আহমদ একবার বিএনপি, একবার জাতীয় পার্টি, আবার বিএনপি; এই বহুরূপী রাজনীতিকের পরামর্শ যদি নেন আপনারা, রসাতলে ডুবে গেছেন, বাকিটাও ডুবে যাবেন।

জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে ছাত্রলীগ ঢাকা মহানগর উত্তর ও দক্ষিণ শাখার উদ্যোগে এই ছাত্র সমাবেশ হয়। রায় নিয়ে ষড়যন্ত্র প্রতিরোধে ছাত্রলীগকে সতর্ক থাকার আহ্বান জানিয়ে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, দুর্যোগকবলিত বৃষ্টিতে সকাল থেকে যে ধৈর্যের পরিচয় তোমরা দিয়েছ; তোমরা মাথা ঠাণ্ডা রেখে কাজ করবে।

ছাত্রলীগের সুনাম ধরে রাখার আহ্বান জানিয়ে সংগঠনটির সাবেক সভাপতি কাদের বলেন, গুটিকয়েকের জন্য গোটা ছাত্রলীগের বদনাম হতে পারে না। খারাপ লোকজন যারা আছে, তাদের দল থেকে বের করে দাও। তাদের দরকার নেই, যারা আমাদের দল ও পার্টির ভাবমূর্তি নষ্ট করে।

ছাত্রলীগ ঢাকা মহানগর উত্তর শাখার সভাপতি মিজানুর রহমানের সভাপতিত্বে সমাবেশে আরো বক্তব্য রাখেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক দীপু মনি, জাহাঙ্গীর কবির নানক, আবদুর রহমান, সাংগঠনিক সম্পাদক আহম্মদ হোসেন, বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক দেলোয়ার হোসেন, ছাত্রলীগের সভাপতি সাইফুর রহমান সোহাগ, সাধারণ সম্পাদক এসএম জাকির হোসাইন, ঢাকা মহানগর দক্ষিণের সভাপতি বায়জিদ আহমদ খান, ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক আসাদুজ্জামান আসাদ, উত্তরের সাধারণ সম্পাদক মহিউদ্দিন আহমেদ প্রমুখ।

মানবকণ্ঠ/এফএইচ