রায়পুরায় আওয়ামী লীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষ, নিহত ২

নরসিংদীর রায়পুরা উপজেলার চরাঞ্চল মির্জাচরে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে আওয়ামী লীগের দুই গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এতে গুলিবিদ্ধ হয়ে ২ জন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন ৩ জন। মঙ্গলবার ভোরে উপজেলার চরাঞ্চল মির্জাচরে এ ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন-মির্জাচর ইউপি চেয়ারম্যান জাফর ইকবাল মানিকের ভাতিজা ইকবাল হোসেন (৩০) ও একই গ্রামের আমানউল্লাহ (২৭)। গুলিবিদ্ধ আহত সাজ্জাদ হোসেন (২৮) আজিজুল ইসলাম (২৬) রহমত উল্লাহকে (১৮) ঢাকায় প্রেরণ করা হয়েছে।

পুলিশ ও নিহতের স্বজনরা জানায়, এলাকার আধিপত্য বিস্তার ও দেড় বছর আগে হয়ে যাওয়া ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনকে কেন্দ্র করে বর্তমান ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি জাফর ইকবাল মানিক সঙ্গে একই ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ফিরোজ মিয়ার ছেলে ফারুক ইসলামের বিরোধ চলে আসছিলো। এরই জের ধরে উভয় পক্ষের মধ্যে একাধিক সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। প্রতিপক্ষের হামলার মুখে চেয়ারম্যান জাফর ইকবাল মানিকের সমর্থকরা এলাকা ছাড়া হয়। মঙ্গলবার তারা এলাকায় প্রবেশের চেষ্টা করলে উভয় পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ বাধে। এতে গুলিবিদ্ধ আহত ৫ জনকে নরসিংদী সদর হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। চিকিৎসক ২ জনকে মৃত ঘোষণা করে এবং গুরুতর অবস্থায় ২ জনকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়।

রায়পুরা থানরি ওসি (অপারেশন) মোজাফর হোসেন জানায়, হতাহতরা সবাই চেয়ারম্যান জাফর ইকবাল মানিকের সমর্থক। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনার জন্য এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

মানবকণ্ঠ/এএম