রাজধানীর প্রধান সড়কে চলবে না লেগুনা: ডিএমপি

রাজধানীর প্রধান সড়কে চলবে না লেগুনা: ডিএমপি

ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) কমিশনার মো. আছাদুজ্জামান মিয়া বলেছেন, ঢাকা মহানগরের রাস্তায় শৃঙ্খলা ফিরিয়ে আনতে সেপ্টেম্বর মাসব্যাপী বিশেষ কার্যক্রম গ্রহণ করেছে ডিএমপি। এই কার্যক্রমের অংশ হিসেবে যত দিন শৃঙ্খলা ফিরে আসে না আসবে, তত দিন পুলিশ কাজ করে যাবে। রাজধানীতে প্রধান সড়কগুলোতে লেগুনা চলবে না।

মঙ্গলবার বেলা ১১টায় রাজধানীর মিন্টু রোডে মিডিয়া সেন্টারে এক সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলেন ডিএমপি কমিশনার।

আছাদুজ্জামান মিয়া বলেন, রাজধানীর সড়কে শৃঙ্খলা ফেরাতে ১২১টি বাস স্টপেজের স্থান নির্ধারণ করা হয়েছে। এসব স্টপেজ ছাড়া কোথাও বাস থামানো যাবে না। সড়কের বর্তমান যে দূরবস্থা তা একদিনে তৈরি হয়নি। এটা অনেকদিনের অনিয়মের ফসল। মানুষ অনিয়মকে এখন নিয়মে পরিণত করেছে। তাই সেপ্টেম্বর মাসজুড়ে বিশেষ ট্র্যাফিক সচেতনতা কার্যক্রম ঘোষণা করেছে ডিএমপি।

হেলমেট ছাড়া কোনো রাইডারকে তেল পাম্পে তেল না দেয়ার নির্দেশ দেয়া হয়েছে জানিয়ে তিনি বলেন, সেপ্টেম্বর মাসজুড়ে ৩২২ জন স্কাউট সদস্য রাজধানীর বিভিন্ন মোড়ে ট্র্যাফিক সচেতনতার কাজ করবে। যেখানে-সেখানে গাড়ি পার্কিং, হেলমেট ছাড়া গাড়ি চালানো যাবে না।

তিনি বলেন, সড়কে শৃঙ্খলা ফিরিয়ে আনার জন্য সব ধরনের ব্যবস্থা গ্রহণ করবে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী।

পথচারীদের উদ্দেশ্যে আছাদুজ্জামান মিয়া বলেন, আপনার ফুটওভারব্রিজ অথবা জেব্রা ক্রসিং ব্যবহার করবেন।

দায়িত্বরত পুলিশ কর্মকর্তাদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, কোনো ব্যক্তি বা তার অবস্থান বিবেচনা করবেন না। আইন অনুযায়ী কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন।

ডিএমপি কমিশনার বলেন, গত ছয় মাসে চালক ও যানবাহনের বিরুদ্ধে ৬ লাখ ২৬ হাজার আইনি ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। আধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহার করে ভিডিও দেখে ৯৯ হাজার মামলা করা হয়েছে। ঈদের আগে যে ১০ দিন ট্রাফিক সপ্তাহ ছিল ওই সময়ে ৮৮ হাজার ২৯৩ মামলায় ৫ কোটি ৬৭ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

ট্রাফিক আইন প্রয়োগের ক্ষেত্রে কোনো ধরনের চাপ বা প্রভাব বিবেচনা করা হবে না। জানিয়ে ডিএমপি কমিশনার আরো বলেন, ট্রাফিক আইনের কঠোর প্রয়োগ হবে। আইন না মানায় আইনে পরিণত হয়েছে। এটা একদিনে তৈরি হয়নি। এটা ভাঙতে সময় লাগবে। তিনি সবাইকে ট্রাফিক আইন মেনে পুলিশকে সহযোগিতা করার আহ্বান জানিয়েছেন।

দখল হওয়া ফুটপাত মুক্ত করার বিষয়ে ডিএমপি কমিশনার বলেন, রাজউক ও সিটি কর্পোরেশনের সঙ্গে বসে ঢাকার বিভিন্ন দখল হওয়া ফুটপাত উদ্ধার করা হবে।

এক প্রশ্নের জবাবে আছাদুজ্জামান মিয়া বলেন, গুজব ছড়িয়ে যারা সামাজিক স্থিতিশীলতা নষ্ট করেন, তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে। তাদের বিরুদ্ধে সব ধরনের আইনি ব্যবস্থা নিশ্চিত করা হবে।

মানবকণ্ঠ/এসএস