রাজধানীতে ট্রেনের ধাক্কায় বৃদ্ধা ও বিদ্যুৎস্পর্শে যুবকের মৃত্যু

নিজস্ব প্রতিবেদক :
রাজধানীতে ট্রেনের ধাক্কায় এক বৃদ্ধা এবং বিদ্যুৎস্পর্শে এক যুবকের মৃত্যু হয়েছে। গতকাল বুধবার কুড়িল বিশ্বরোডে মেয়ের সঙ্গে রেললাইন ধরে হাঁটার সময় ট্রেনের ধাক্কায় মারা যান ফিরোজা বেগম (৬২) নামে ওই বৃদ্ধা। আর ফার্মগেটে বিদ্যুৎস্পর্শে মারা যান জিয়াউল হক নামে এক ব্যক্তি।
ফিরোজার মেয়ে নাজমা বেগম (৩৫) জানান, তার মাকে ডাক্তার দেখাতে বুধবার সকালে নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জ থেকে তারা ঢাকায় এসেছিলেন। ফেরার পথে কুড়িল বিশ্বরোডে এসে রূপগঞ্জের কাঞ্চনে যাওয়ার বাস ধরতে রেললাইন পার হওয়ার সময় বেলা পৌনে ১টার দিকে তারা দুর্ঘটনায় পড়েন। অন্যদিকে প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়, মোবাইল ফোনে কথা বলতে বলতে রেললাইন ধরে খিলক্ষেতের দিকে হাঁটছিলেন নাজমা। আর ফিরোজা বেগম হাঁটছিলেন তার পেছনে পেছনে। ওই সময় কমলাপুর থেকে ছেড়ে আসা একটি ট্রেন তাদের পেছনে চলে আসে। শেষ সময়ে ট্রেন আসার বিষয়টি বুঝতে পেরে নাজমা সরে যেতে পারলেও তার মা ট্রেনের ধাক্কায় মাথায় আঘাত পেয়ে ঘটনাস্থলেই মারা যান। রেললাইন থেকে সরতে লাফিয়ে পাথরের ওপর পড়ায় নাজমা নিজেও হাতের কনুইয়ে আঘাত পেয়েছেন।
অন্যদিকে, গতকাল বুধবার দুপুর পৌনে ১২টার দিকে ফার্মভিউ সুপার মার্কেটের ওপর থেকে বিদ্যুৎস্পর্শে পুলিশ বক্সের সামনে পড়েন জিয়াউল হক। এতে গুরুতর আহত হলে তাকে হাসপাতালে নেয়া হলে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।
ফার্মভিউ সুপার মার্কেটে নির্মাণ কাজ চলছিল উল্লেখ করে সেখানে ফার্মগেট পুলিশ বক্সের আনসার সদস্য অমল দাস বলেন, তাদের ধারণা, ওই ভবনের তৃতীয়তলায় বিদ্যুতের কাজ করার সময় জিয়াউল বিদ্যুৎস্পর্শে নিচে পড়ে যান। নিহত জিয়াউল হকের বাড়ি ফৈনীর দাগনভূঞা উপজেলায়। তিনি বিমানবন্দর এলাকায় থাকতেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.