রাঙ্গামাটিতে দুই বোনকে ধর্ষণের অভিযোগ

রাঙ্গামাটির বিলাইছড়ি উপজেলায় দুই বোন ধর্ষণের শিকার হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। সোমবার রাতে উপজেলার ফারুয়া ইউনিয়নের ওরাছড়ি গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। বর্তমানে তারা রাঙ্গামাটি জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

হাসপাতালে কর্তব্যরত চিকিৎসক মারুফ বলেন, মঙ্গলবার দুপুরে দুজন মারমা কিশোরীকে বিলাইছড়ি উপজেলার ফারুয়া ইউনিয়নের ওরাছড়ি গ্রাম থেকে রাঙ্গামাটি জেনারেল হাসপাতালে আনা হয়। তারা দুজনই ধর্ষণের শিকার হয়েছেন বলে আমাকে জানিয়েছেন। তাদের হাসপাতালে ভর্তি করিয়েছি। মহিলা চিকিৎসক আসলে আলামত সংগ্রহ করে পরীক্ষা করবে। ভুক্তভোগীরা যে ঘটনার কথা বলেছে তা ইতিমধ্যে ২৪ ঘণ্টা পার হয়েছে।

এদিকে সন্ধ্যা সোয়া ৬টার দিকে হাসপাতালে মহিলা ওয়ার্ডে গিয়ে দেখা যায় ভুক্তভোগী দুই কিশোরী কম্বল দিয়ে নিজেদের ঢেকে রেখেছেন। পাশে আত্মীয়রা বিমর্ষ অবস্থায় বসে আছেন। কথা বলতে চাইলে কেউ কথা বলতে রাজি হননি। এদের মধ্যে একজন হাসপাতালে বারান্দায় এসে প্রতিবেদককে বলেন এ বিষয়ে কথা বলতে নিষেধ আছে।

কর্তব্যরত একজন সেবিকা বলেন, দুজনের মধ্যে একজনের অবস্থা ভাল নয়। তার এখনও ব্লিডিং হচ্ছে। ঔষুধ দেয়া হচ্ছে। ওই কিশোরীর ব্যবস্থাপত্রে ৫টি ঔষধের মধ্যে দিনে তিনটি করে Tracid (500mg) ট্যাবলেট দেয়া হয়েছে।

রাঙ্গামাটি মা ও শিশু কেন্দ্রের গায়িনী চিকিৎসক লেলিন তালুকদার বলেন, কারোর রক্ত ক্ষরণ হতে থাকলে তা বন্ধ করতে রোগীকে Tracid (500mg) ট্যাবলেট দেয়া হয়।

রাঙ্গামাটি অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (অপরাধ) মো. সাফিউল সারোয়ার বলেন, এ বিষয়ে কেউ এখনো পুলিশের কাছে কোনো অভিযোগ দেয়নি।

মানবকণ্ঠ/এফএইচ