রক্তের গ্রুপ নির্ণয় করে রংপুরে রেকর্ড

রংপুর প্রতিনিধি:
আলোকিত তারাগঞ্জ ডাটাবেজের আওতায় উপজেলার সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীদের রক্তের গ্রুপ নির্ণয় করা হয়েছে। শিক্ষার্থী, শিক্ষক ও বিভিন্ন পেশার মানুষসহ এর সংখ্যা প্রায় ৭০ হাজার। এর আগে কখনো বাংলাদেশে কিংবা বিশ্বের কোনো দেশে একসঙ্গে এত মানুষের রক্তের গ্রুপ নির্ণয় করে তা ডাটাবেজ আকারে সংরক্ষণ করা হয়নি বলে দাবি সংশ্লিষ্টদের। দেশের প্রথম সফল এ উদ্যোগটি বাস্তবায়ন করেছেন রংপুর জেলার তারাগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জিলুফা সুলতানা। গত মঙ্গলবার দুপুরে তারাগঞ্জ সরকারি কলেজ মাঠে এ ডাটাবেজ ও স্কুল ভিত্তিক ব্লাড ক্লাবের উদ্বোধন করেন রংপুরের জেলা প্রশাসক এনামুল হাবীব। এ সময় উপজলা নির্বাহী কর্মকর্তা জিলুফা সুলতানা, উপজেলা চেয়ারম্যান আনিছুর রহমান লিটন, উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি আতিয়ার রহমানসহ বিপুল পরিমাণ শিক্ষক ও শিক্ষার্থী উপস্থিত ছিলেন। জানা যায়, তারাগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার তত্ত্বাবধানে গত বছরের ১৬ ডিসেম্বর মুক্তিযোদ্ধাদের রক্তের গ্রুপ নির্ণয়ের মাধ্যমে ‘নিজের রক্তের গ্রুপ জানি, রক্ত দিয়ে কাছে টানি’, শ্লোগানে রক্তের গ্রুপ নির্ণয়ের কাজ শুরু হয়। স্কুল পর্যায়ে শিক্ষক, শিক্ষার্থী ও স্কুল ম্যানেজিং কমিটির সদস্যদের রক্তের গ্রুপ নির্ণয়ের কাজ শুরু হয় ১ ফেব্রুয়ারি।
আগস্ট মাসে শিক্ষার্থীসহ ৭০ হাজার মানুষের রক্তের গ্রুপ নির্ণয়ের কাজ শেষ হয়। গত মঙ্গলবার তারাগঞ্জ সরকারি কলেজ মাঠে উপজেলার ১৬৪টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা শিক্ষকসহ আসে। শিক্ষার্থীরা রক্তের ৮টি গ্রুপ অনুযায়ী লাইনে দাঁড়িয়ে যায়। সেখানে উপস্থিত হয়ে জেলা প্রশাসক রক্তের গ্রুপ অনুযায়ী শিক্ষার্থীদের হাতে নিজ নিজ রক্তের গ্রুপ কার্ড তুলে দেন। সেই সঙ্গে স্কুল ভিত্তিক ব্লাড ক্লাবের উদ্বোধন ঘোষণা করেন। পরে ক্যান্সার আক্রান্ত এক ব্যক্তিকে আগামী ১৩ মাস রক্ত দান করার জন্য ১৩ জন ডোনার বাছাই করে দেয়া হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published.