রংপুরের ঘটনায় টিটু রায়কে গ্রেফতার করা হয়েছে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেছেন, অপরাধীকে শাস্তি পেতেই হবে। যার বিরুদ্ধে ফেসবুকে ইসলাম ধর্ম অবমাননার অভিযোগ তুলে রংপুরে হিন্দুপল্লীর বাড়িঘরে আগুন দেয়া হয়েছে সেই টিটু রায়কে নীলফামারীর জলঢাকা থেকে গ্রেফতার করা হয়েছে। ফেসবুক আইডি টিটু রায়ের কিনা তা তদন্ত করে দেখা হচ্ছে বলেও তিনি জানান।

মঙ্গলবার দুপুরে সদর উপজেলার খলেয়া ইউনিয়নের ঠাকুরপাড়া গ্রামের ক্ষতিগ্রস্ত হিন্দুপল্লী পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

রংপুরের পুলিশ সুপার মিজানুর রহমান জানিয়েছেন, নীলফামারী জেলার জলঢাকা উপজেলার গোলনা ইউনিয়নের চিঁড়াভেজা এলাকায় টিটু তার স্ত্রীর এক আত্মীয়ের বাড়িতে ছিলেন আত্মগোপন করে। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে মঙ্গলবার সকালে তাকে গ্রেফতার করা হয়। তাকে হেফাজতে রেখে জিজ্ঞাসাবাদ করছে পুলিশ।

এদিকে, সদর উপজেলার মাদরাসা মাঠে রংপুর জেলা পুলিশ আয়োজিত সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি সমাবেশে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশের শান্তি ও ধর্মীয় সম্প্রীতি নষ্টকারীদের ব্যাপারে সজাগ থাকতে হবে। শান্তির রংপুরে যারা ধর্মীয় সম্প্রীতি নষ্ট করে অশান্তি সৃষ্টি করতে চায় তাদের চিহ্নিত করতে হবে। গোটা বিশ্বে বাংলাদেশ সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির উজ্জ্বল দেশ হিসেবে পরিচিত। এখানে কেউ সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বিনষ্ট করলে মেনে নেওয়া হবে না, কঠোরভাবে মোকাবিলা করা হবে বলেও তিনি হুঁশিয়ারি দেন।

রংপুরের পুলিশ সুপার মিজানুর রহমানের সভাপতিত্বে সমাবেশে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী বীরেন শিকদার, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি টিপু মুনশি এমপি, পুলিশের মহাপরিদর্শক শহীদুল হক, রংপুর রেঞ্জের ডিআইজি খন্দকার গোলাম ফারুক, রংপুর বিভাগীয় কমিশনার কাজী হাসান আহমেদ, রংপুর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মমতাজউদ্দিন আহমেদ, সাধারণ সম্পাদক রেজাউল করিম রাজু, রংপুর মহানগর সাধারণ সম্পাদক তুষার কান্তি মণ্ডল, সদর উপজেলা চেয়ারম্যান নাছিমা জামান ববি প্রমুখ।

উল্লেখ্য, গত শুক্রবার বিকেলে মুসল্লিরা রংপুর সদর উপজেলার খলেয়া ইউনিয়নের ঠাকুরপাড়া হিন্দুপল্লীতে ধর্ম অবমাননার অভিযোগ তুলে হামলা ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগের ঘটনা ঘটায়। এতে আটটি পরিবারের ঘরবাড়ি আগুনে পুড়ে যায়। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পুলিশের গুলিতে হাবিবুর রহমান নামে এক যুবক নিহত হয়। এ ঘটনায় অজ্ঞাতনামা দুই হাজার জনকে আসামি করে মামলা দায়ের করে পুলিশ।

মানবকণ্ঠ/এফএইচ