যুক্তরাষ্ট্রের চারটি অঙ্গরাজ্যে ভয়াবহ ঝড়

যুক্তরাষ্ট্রের নেব্রাস্কা, আইওয়া, কোলোরাডো ও উয়োমিংয়ে শীতের শেষে শুরু হওয়া ভয়াবহ ঝড়ে বুধবার ব্যাপক বন্যা ও তুষারপাত দেখা দিয়েছে। এতে কিন্তু এলাকার মানুষকে অন্যত্র সরিয়ে নেয়া হয়েছে। ব্যাপক তুষারপাত ও বন্যায় অঞ্চলটির রাস্তঘাট চলাচলের অনুপযোগী হয়ে পড়েছে। খবর বার্তা সংস্থা এএফপি’র।

এএফপি’র প্রতিবেদনে ডেনভার বিমানবন্দরে প্রায় ১ হাজার ৪শ’ ফ্লাইট বাতিল করা হয়েছে এবং এর সবকটি রানওয়ে বন্ধ করে দেয়া হয়েছে।
কলোরাডো সরকার জরুরি অবস্থা ঘোষণা করেছে এবং ন্যাশনাল গার্ড সৈন্যদের মোতায়েন করা হয়েছে।

নেব্রাস্কার গভর্নর পেটে রিকেটস বলেন, ‘এটা খুবই মারাত্মক বৈরী আবহাওয়া হতে পারে। আমরা ইতোমধ্যেই বেশ কয়েকটি এলাকায় বন্যার খবর পেয়েছি এবং কয়েকটি এলাকা থেকে বাসিন্দাদের অন্যত্র সরিয়ে নেয়া হচ্ছে।’

সংবাদমাধ্যম ডেনভার পোস্ট জানিয়েছে, কলোরাডো পুরু তুষারে ঢাকা পড়েছে। ঘন্টায় সর্বোচ্চ ৯০ মাইল বেগে ঝড়ো হাওয়ার সঙ্গে তুষারপাত হচ্ছে। প্রাকৃতিক এই ভয়াবহ দুর্যোগের কারণে বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে। হাজার হাজার মানুষ বিদ্যুৎবিহীন অবস্থায় রয়েছে।

উয়োমিং ট্রিবিউন ঈগল জানিয়েছে, উয়োমিংয়ে স্কুল, ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ও সরকারি অফিস বন্ধ রয়েছে। বন্যার পানি অতীতের সমস্ত রেকর্ড ছাড়িয়ে যাবে বলে নেব্রাস্কার কর্মকর্তারা আশঙ্কা করছেন।

নেব্রাস্কার পরিবহন পরিচালক কাইলে স্কেনেউইস বলেন, ‘এটি একটি নজিরবিহীন ঘটনা।

কেইটিভি জানায়, ওমাহায় বন্যার পানি নদী তীরবর্তী বাঁধ ছাড়িয়ে গেছে।

জাতীয় আবহাওয়া বিভাগও বৃষ্টি ও তুষারপাতের ফলে নদীগুলোর দুকূল উপচে আইওয়া’র বিস্তীর্ণ এলাকা প্লাবিত হওয়ার পূর্বাভাস ব্যক্ত করেছে।

মানবকণ্ঠ/এআর

Leave a Reply

Your email address will not be published.