যথাযোগ্য মর্যাদায় সারাদেশে মহান বিজয় দিবস উদযাপন

যথাযোগ্য মর্যাদায় সারাদেশে মহান বিজয় দিবস উদযাপন

র‌্যালি, আলোচনা সভা, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান, কুচকাওয়াজ, পুষ্পস্তবক অর্পণ, স্বেচ্ছায় রক্তদান কর্মসূচি, দোয়া ও মোনাজাত, শহীদ মুক্তিযোদ্ধা পরিবারকে ভাতা প্রদান, প্রামাণ্য চলচ্চিত্র প্রর্দশন, প্রীতি ফুটবল ম্যাচ এবং ৩১ বার তোপধ্বনি করাসহ নানা কর্মসূচির মধ্য দিয়ে রোববার সারাদেশে মহান বিজয় দিবস উদযাপন করা হয়েছে। জেলা-উপজেলা প্রশাসন ও মুক্তিযোদ্ধা সংসদ এসব কমসূচি আয়োজন করে। ব্যুরো ও প্রতিনিধিদের পাঠানো খবর—

বগুড়া: সকাল ৮ টায় শহীদ চান্দু স্টেডিয়ামে বিভিন্ন স্কুল কলেজের ছাত্রছাত্রীরা কুচকাওয়াজ ও মনোঙ্গ ডিসপ্লে প্রদর্শন করে। এ ছাড়া শুটিং ও চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা, শহীদ মুক্তিযোদ্ধাদের বিদেহী আত্মার মাগফিরাত কামনা করে মসজিদ, মন্দির, প্যাগোডা, গির্জাসহ অন্য উপাসনালয়ে বিশেষ প্রার্থনার আয়োজন করা হয়।

গোপালগঞ্জ: জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের টুঙ্গিপাড়ার সমাধি সৌধ বেদীতে রাত ১২টা ১ মিনিটে পুষ্পস্তবক অর্পণ করে শ্রদ্ধা জানানো হয়। প্রথমে জেলা প্রশাসন, পুলিশ প্রশাসন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, মুক্তিযোদ্ধা সংসদ ও জেলা আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের পক্ষ থেকে বঙ্গবন্ধুর সমাধি সৌধের বেদীতে পুষ্পস্তবক অর্পণ করা হয়।

গাজীপুর: জেলা শহরের রাজবাড়ী মাঠে শহীদ সৃতিস্তম্ভে পুষ্পস্তক অর্পণ করেন গাজীপুর জেলা প্রশাসক ড. দেওয়ান মুহাম্মদ হুমায়ূন কবীর, মেট্রোপলিটন পুলিশের কমিশনার ওয়াই এম বেলালুর রহমান, গাজীপুর জেলা অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মুহাম্মদ রাসেল শেখ সহ অন্যরা।

মাগুরা: জেলা শহরের নোমানী ময়দানে সকাল সাতটায় মুক্তিযোদ্ধা স্মৃতিস্তম্ভে পুষ্পমাল্য অর্পণ করা হয়। পরে কুচকাওয়াজে জেলা প্রশাসক মো. আকবর আলী ও পুলিশ সুপার খান মুহাম্মদ রেজোয়ান সালাম গ্রহণ করেন।

সাতক্ষীরা: সূর্যোদয়ের সঙ্গে সঙ্গে সকল সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে জাতীয় পতাকা উত্তোলন করা হয়। সকাল সোয়া ৮টায় সাতক্ষীরা স্টেডিয়ামে মুক্তিযোদ্ধাদের রুহের মাগফিরাত কামনায় মোনাজাত করা হয়। পরে পুলিশ, বিএনসিসিসহ বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ছাত্রছাত্রীদের সমন্বয়ে কুচকাওয়াজ ও শরীর প্রদর্শনী এবং রক্তদান কর্মসূচি অনুষ্ঠিত হয়।

দিনাজপুর: প্রথম প্রহরে দিনাজপুর জেলার শহীদ মুক্তিযুদ্ধা স্মৃতিস্তম্ভে জাতীয় সংসদের হুইপ ইকবালুর রহিম পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন। পরে জেলা প্রশাসক মাহমুদুল আলম পুলিশ সুপার সৈয়দ আবু সায়েম, দিনাজপুর সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসার সৈযদ মোহাম্মদ হোসেনের নেতৃত্বে শিক্ষকরা শ্রদ্ধা নিবেদন করেন।

জয়পুরহাট: ৩১ বার তপোধ্বনির মধ্য দিয়ে জয়পুরহাটে মহান বিজয় দিবসের শুভ সূচনা হয়। প্রথম প্রহরে জেলা প্রশাসক জাকির হোসেন, পুলিশ সুপার রশীদুল হাসান, জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আরিফুর রহমান রকেট, মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার আমজাদ হোসেন ও আওয়ামী লীগসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক, সাংস্কৃতিক, সামাজিক সংগঠন স্থানীয় কেন্দ্রীয় স্মৃতি সৌধে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন ।

জামালপুর: মুক্তিযোদ্ধা সংসদের অফিস প্রাঙ্গণে ৩১বার তপোধ্বনির মধ্য দিয়ে দিবসের সূচনা হয়। এরপর জেলা প্রশাসন, পুলিশ প্রশাসন, জেলা আওয়ামী লীগ, জেলা বিএনপি, মুক্তিযোদ্ধা সংসদ, জামালপুর প্রেসক্লাবসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক ও সামাজিক সংগঠনের পক্ষ থেকে স্থানীয় শহীদ মুক্তিযোদ্ধা স্মৃতিস্তম্ভে পুষ্পস্তবক অর্পণ করা হয়।

গাইবান্ধা: জেলা শিল্পকলা একাডেমি মিলনায়তনে ‘সুখী সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গঠনের লক্ষ্যে ডিজিটাল প্রযুক্তির সার্বজনিন ব্যবহার এবং মুক্তিযুদ্ধ’ শীর্ষক আলোচনা সভা হয়েছে। সকালে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) এবিএম সাদিকুর রহমানের সভাপতিত্বে এ সভা হয়। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন— জেলা প্রশাসক সেবাস্টিন রেমা। বক্তব্য রাখেন— পুলিশ সুপার প্রকৌশলী মো. আবদুল মান্নান মিয়া, পৌর মেয়র অ্যাড. শাহ মাসুদ জাহাঙ্গীর কবীর মিলন, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আবু বকর সিদ্দিক প্রমুখ।

নওগাঁ: জেলা প্রশাসকের নেতৃত্বে সকাল সাড়ে ৬টায় শহরের মুক্তির মোড়ে শহীদ মুক্তিযোদ্ধা স্মৃতিস্তম্ভে জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে পুষ্পার্ঘ্য অর্পণ করা হয়। পরে একে একে জেলা পুলিশ প্রশাসনসহ বিভিন্ন সরকারি দফতর, বিভিন্ন রাজনৈতিক দল, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠনের পক্ষ থেকে স্মৃতিস্তম্ভে ফুল দিয়ে শহীদদের শ্রদ্ধা জানানো হয়।

পটুয়াখালী: জেলা শহরের পিডিএসএ ময়দান থেকে সকাল সাড়ে ১১টায় র‌্যালি বের করা হয়। এর আগে সমাবেশে জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক কাজী আলমগীরের সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক অ্যাডভোকেট আফজাল হোসেনসহ অন্যরা।

ইবি: ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় (ইবি) ক্যাম্পাস চত্বরে বর্ণাঢ্য শোভাযাত্র, শ্রদ্ধাঞ্জলি নিবেদন, দোয়া মোনাজাত, খেলাধুলা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানসহ বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করেছে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। সকাল সাড়ে ৯টার দিকে উপাচার্য অধ্যাপক ড. রাশিদ আসকারী এবং উপ-উপাচার্য অধ্যাপক ড. এম শাহিনুর রহমানের নেতৃত্বে প্রশাসন ভবনের সামনে জাতীয় ও বিশ্ববিদ্যালয় পতাকা উত্তোলন করে বেলুন উড়ানো হয়। এ সময় উপস্থিত ছিলেন কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. সেলিম তোহা এবং উপ-রেজিস্ট্রার নওয়াব আলী খান প্রমুখ।

মির্জাপুর (টাঙ্গাইল): টাঙ্গাইলের মির্জাপুর সদরের কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে এবং উপজেলা পরিষদ চত্বরে মুক্তির মঞ্চে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. আব্দুল মালেক পুষ্পস্তক অর্পণ করেন। সকাল সাড়ে ৮টায় সদরের মির্জাপুর সরকারি এস কে পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে পুলিশ, আনসার বিডিপি ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীদের অংশগ্রহণে কুচকাওয়াজ অনুষ্ঠিত হয়।

তাড়াশ (সিরাজগঞ্জ): সিরাজগঞ্জের তাড়াশ হেলিপ্যাড মাঠে জাতীয় পতাকা উত্তোলন ও কবুতর অবমুক্তি করে কুচকাওয়াজ পরিদর্শন করেন স্থানীয় জাতীয় সংসদ সদস্য গাজী ম ম আমজাদ হোসেন মিলন। ওই সময় উপস্থিত ছিলেন তাড়াশ উপজেলা চেয়ারম্যান ও আ’লীগ সভাপতি আব্দুল হক, তাড়াশ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ই্ফফাত জাহানসহ অন্যরা। পরে চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা, মুক্তিযোদ্ধাদের সংবর্ধনা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান হয়।

ত্রিশাল (ময়মনসিংহ): ময়মনসিংহের ত্রিশালে জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. এএইচএম মোস্তাফিজুর রহমানের নেতৃত্বে স্মৃতিসৌধে পুষ্পস্তবক অর্পণ করা হয়। ওই সময় উপস্থিত ছিলেন— বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রেজারার জালাল উদ্দিন, রেজিস্ট্রার (ভারপ্রাপ্ত) কৃষিবিদ হুমায়ুন কবীর, কলা অনুষদের ডিন ড. শাহাব উদ্দিন বাদল, বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সভাপতি নজরুল ইসলাম বাবু, সাধারণ সম্পাদক রাকিব হাসান রাকিব প্রমুখ।

দাউদকান্দি (কুমিল্লা): কুমিল্লার দাউদকান্দিতে মুক্তিযুদ্ধ স্মৃতিস্তম্বে পুষ্প অর্পণ, জাতীয় পতাকা উত্তোলন, কুচকাওয়াজ, ডিসপ্লে, ও মুক্তিযোদ্ধারে ফুল দিয়ে বরণ, আলোচনা সভা, পুরস্কার বিতরণ শহীদ মুক্তিযোদ্ধা পরিবারে ভাতা প্রদান, প্রীতি ফুটবল ম্যাচ ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে দিবসটি উদযাপন করা হয়। মুক্তিযুদ্ধ স্মৃতিস্তম্বে পুষ্প অর্পণ করেন মেজর জেনারেল (অব.) সুবিদ আলী ভূইয়া এমপি, উপজেলা চেয়ারম্যান মেজর (অব.) মোহাম্মদ আলী সুমন, উপজেলা নির্বাহী অফিসার মাহবুব আলম, পৌর মেয়র নাইম ইউসুফ সেইন, প্যানেল মেয়র রকিব উদ্দিনসহ অন্যরা।

ভালুকা (ময়মনসিংহ): ভালুকা ডিগ্রি কলেজ মাঠে সকাল ৯ টায় কোরান তেলাওয়াত, গীতাপাঠ, জাতীয় পতাকা উত্তোলন, বেলুন ও শান্তির পায়রা উড়ানোর মধ্য দিয়ে বিজয় দিবসের অনুষ্ঠান শুরু হয়। বিজয় দিবস অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন— উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মাসুদ কামাল, উপজেলা চেয়ারম্যান আলহাজ গোলাম মোস্তফা, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলাম পিন্টু, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান মনিরা সুলতানা মনি, ভালুকা মডেল থানার ওসি ফিরোজ তালুকদার, ভালুকা ডিগ্রি কলেজের অধ্যক্ষ আব্দুর রউফ প্রমুখ।

কালিয়াকৈর (গাজীপুর): গাজীপুরের কালিয়াকৈর উপজেলার গোলাম নবী মডেল পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ সাইফুল ইসলাম। ওই সময় উপস্থিত ছিলেন— উপজেলা চেয়ারম্যান মো. রেজাউল করিম রাসেলসহ অন্যরা। পরে জাতীয় পতাকা উত্তোলন এবং উপজেলার বিভিন্ন স্কুলের ছাত্রছাত্রীরা কুচকাওয়াজ ও ডিসপ্লে প্রদর্শনে অংশ গ্রহণ করেন।

চকরিয়া (কক্সবাজার): চকরিয়া প্রেসক্লাবের পক্ষ থেকে সকালে শ্রদ্ধাঞ্জলি জ্ঞাপন করা হয়েছে। চকরিয়া প্রেসক্লাবের সভাপতি আবদুল মজিদ ও সাধারণ সম্পাদক একেএম বেলাল উদ্দিনের নেতৃত্বে শ্রদ্ধাঞ্জলি জ্ঞাপনকালে প্রেসক্লাবের নেতারা ও সদস্যরাসহ বিভিন্ন শ্রেণি পেশার ব্যক্তিরা উপস্থিত ছিলেন।

হাতিয়া (নোয়াখালী): হাতিয়া উপজেলার ওছখালী সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে সকালে কুচকাওয়াজ ও ডিসপ্লে প্রদর্শন করা হয়। ওই সময় উপস্থিত ছিলেন— উপজেলা চেয়ারম্যান মাহবুব মোর্শেদ লিটন, উপজেলা নির্বাহী অফিসার নূর-ই-আলম, সহকারি কমিশনার (ভূমি) সৈয়দ মাহবুবুল হক, হাতিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ কামরুজ্জামান শিকদার, কোস্টগার্ড কন্টিজেন্ট কমান্ডার লেফ. শাকিল আহমেদ প্রমুখ।

মুরাদনগর (কুমিল্লা): মুরাদনগর উপজেলার কেন্দ্রীয় স্মৃতিসৌধে সকালে পুষ্পস্তবক অর্পণ করে শহীদদের আত্মার মাগফিরাত কামনা করেন সংসদ সদস্য ইউসুফ আবদুল্লাহ হারুন (এফসিএ), উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান সৈয়দ আবদুল কাইয়ুম খসরু, উপজেলা নির্বাহী অফিসার মিতু মরিয়ম, সহকারী কমিশনার (ভূমি) রায়হান মেহেবুব।

রৌমারী (কুড়িগ্রাম): কুড়িগ্রামের রৌমারী উপজেলার সি জি জামান উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে জাতীয় পতাকা উত্তোলন ও পায়রা উড়িয়ে দিনের কর্মসূচি উদ্বোধন করা হয়। ওই সময় উপস্থিত ছিলেন— উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাবেক এমপি মো. জাকির হোসেন, রৌমারী উপজেলা চেয়ারম্যান মো. মজিবুর রহমান বঙ্গবাসী, রৌমারী উপজেলা নির্বাহী অফিসার দীপঙ্কর রায়, সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার (রৌমারী সার্কেল) শহীদ সোরোয়ারর্দী, রৌমারী থানার অফিসার ইনচার্জ মো. জাহাঙ্গীর আলম প্রমুখ।

বিশ্বনাথ (সিলেট): উপজেলার রামসুন্দর অগ্রগামী মডেল উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে উপজেলার বীরমুক্তিযোদ্ধা, পুলিশ প্রশাসন, আনসার-ভিডিপি, বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের কাব-স্কাউটস-গার্লস গাইডসহ শিক্ষার্থীদের অংশগ্রহণে অনুষ্ঠিত হয় কুচকাওয়াজ, শরীর চর্চা প্রদর্শন ও ক্রীড়া প্রতিযোগিতা হয়। ওই সময় উপস্থিত ছিলেন— উপজেলা চেয়ারম্যান সুহেল আহমদ চৌধুরী, উপজেলা নির্বাহী অফিসার অমিতাভ পরাগ তালুকদার, উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ফাতেমা তুজ জোহরা, বিশ্বনাথ থানার অফিসার ইনচার্জ শামসুদ্দোহা, থানার পরিদর্শক (তদন্ত) দুলাল আকন্দ প্রমুখ।

সরিষাবাড়ী (জামালপুর): জামালপুরের সরিষাবাড়ী অনার্স কলেজ মাঠে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীদের অংশগ্রহণে শারীরিক কসরত ও কুচকাওয়াজ প্রদর্শন করা হয়। পরে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভা ও পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার সাইফুল ইসলাম। বক্তব্য রাখেন আওয়ামী লীগ মনোনিত স্থানীয় এমপি প্রার্থী ডা. মুরাদ হাসান, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ ছানোয়ার হোসেন বাদশা, পৌর মেয়র রুকুনুজ্জামান রোকন, উপজেলা পরিষদের মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান বেগম জহুরা লতিফ, সহকারী কমিশনার (ভূমি) কামরুন নাহার কেয়া, অফিসার ইনচার্জ মাজেদুর রহমান প্রমুখ।

মানবকণ্ঠ/এসএস