মানবকণ্ঠে সংবাদ প্রকাশের পর কর্ণফুলীতে দখল মুক্ত দুই সেতু

দৈনিক মানবকণ্ঠে সংবাদ প্রকাশের পর অবশেষে অবৈধ দখলমুক্ত হলো কর্ণফুলী উপজেলা চরপাথরঘাটার দুই সেতু। দীর্ঘ ৯/১০ বছর যাবত দুই সেতুতে অবৈধ দখলদারেরা ২৫টি ব্যবসা প্রতিষ্ঠান তৈরি করেছিলেন।

গত ৭মার্চ বৃহস্পতিবার দৈনিক মানবকণ্ঠে ‘কর্ণফুলীতে দুই সেতুতে ২৫ ব্যবসা প্রতিষ্ঠান’ শিরোনামে সংবাদ প্রকাশিত হওয়ার পর বিষয়টি সড়ক ও জনপদ বিভাগ (সওজ) ও চট্টগ্রাম উন্নয়ন কতৃপক্ষের (সিডিএ) নজরে আসলে অবৈধ দখলদারদের জায়গা ছেড়ে দিতে মৌখিক ভাবে নির্দেশনা দেয়া হয়। ওই নির্দেশনার কিছুদিন পর অনেক দোকানদার নিজেরাই দখল ছেড়ে চলে যায়। এছাড়া অন্যান্য দোকানগুলোকে তুলে দেয়ার জন্য বৃহস্পতিবার দুপুরে সড়ক ও জনপদ বিভাগ (সওজ) অভিযান চালায়।

উল্লেখ্য, কর্ণফুলী উপজেলার চরপাথরঘাটা এলাকায় সরকারি সড়ক দখল করে দুই সেতুতে অবৈধভাবে বসানো হয়েছিল ২৫টি ব্যবসা প্রতিষ্ঠান। অবৈধ দখলদারেরা দীর্ঘদিন প্রভাব খাটিয়ে ব্যবসা চালিয়ে আসছিলো।

জানা যায়, সেতুর উপর ২৫টি দোকানের কারণে সড়কে চলাফেরা করতে ভোগান্তি পোহাতে হতো সাধারণ জনগণ ও পথচারীদের। অপরদিকে একটি সিন্ডিকেট এসব দোকান হতে ভাড়া ও সেলামি বাবদে বছরে হাতিয়ে নিতেন অন্তত কয়েক লাখ টাকা।

সরেজমিন ঘুরে দেখা যায়, কথিত নাম খোয়াজনগর ইসলাম চেয়ারম্যান সেতু ও সৈন্যেরটেক সেতুর দুপাশে সড়কের গড়ে উঠা অবৈধ দোকানগুলো সরিয়ে নিয়ে গেছে। এতে সেতুর উপর দিয়ে যান চলাচলে স্বস্তি ফিরে এসেছে উপজেলার অনেক চালকদের মধ্যে। এছাড়া দীর্ঘদিন পর সেতুতে থাকা ওয়াকিং পথ দিয়ে হাঁটতে দেখা যায় পথচারীদের। ফলে এখন আর বড় বড় ট্রাক ও মালবাহী গাড়ি চলাচলে কোন বাঁধা নেই।

এ বিষয়ে ধারাবাহিক ভাবে দৈনিক মানবকণ্ঠে কয়েকটি সংবাদ প্রকাশ হলে স্থানীয় জনগণ ও জনপ্রতিনিধিদের মাঝে আলোড়ন সৃষ্টি হয়। পরবর্তীতে সড়কের কাজ ও রাস্তা প্রশস্ত করণে দুই সেতুতে থাকা অবৈধ দোকান উচ্ছেদ করা হয়।

মানবকণ্ঠ/এফএইচ