মাগুরায় নারী ক্রিকেটারের ওপর হামলা

মাগুরায় নারী ক্রিকেটারের ওপর হামলামাগুরায় সারদা আক্তার (১৬) নামে বিকেএসপি’র এক নারী ক্রিকেটারকে পিটিয়ে জখম করেছে প্রতিপক্ষরা। সারদা আক্তার বিকেএসপির ছাত্রীর পাশাপাশি বাংলাদেশ ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ডেরও তালিকাভুক্ত একজন নারী ক্রিকেটার। আশংকাজনক অবস্থায় তাকে মাগুরা ২৫০শয্যা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। বুধবার বিকেলে তার ওপর এ হামলার ঘটনা ঘটে। কয়েকদিন আগে মাগুরা সদর উপজেলার আঙ্গারদাহ গ্রামে নিজ বাড়িতে বেড়াতে এসেছেন সারদা।

ক্রিকেটার সারদার বড় বোন নার্গিস আক্তার বলেন, জমাজমি নিয়ে প্রতিবেশি চাচা বকুল বিশ্বাসের সাথে তাদের পারিবারিক বিরোধ রয়েছে। এ বিরোধের সূত্র ধরে বুধবার বিকেলে বকুল বিশ্বাসের নেতৃত্বে ২০-২৫ জন ব্যাক্তি লাঠিশোঠা নিয়ে তাদের পরিবারের সদস্যদের ওপর হামলা করে। এ সময় ছোট বোন ক্রিকেটার সারদাসহ পরিবারের ছয় সদস্য আহত হয়। তবে হামলাকারীরা সারদার মাথায় উপর্যুপুরি লাঠি আঘাত করে। এতে তার নাক, মুখ দিয়ে রক্ত বের হয়ে অচেতন হয়ে পড়ে। আংশকাজনক অবস্থায় তাকে মাগুরা ২৫০ শয্যা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

নার্গিস আক্তার জানান, সারদা বিকেএসপি নারী ক্রিকেটের ছাত্রী। আবাসিক ক্রিকেট প্যাকটিসের পাশাপাশি বর্তমানে সে বিকেএসপিতে ১০ শ্রেণীতে পড়াশুনা করে। একই সাথে সে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের তালিকাভুক্ত জাতীয় পর্যায়ের একজন নারী ক্রিকেটার। কয়েকদিন আগে বিকেএসপি থেকে সে ছুটিতে মাগুরা সদর উপজেলার আঙ্গারদাহ গ্রামে নিজ বাড়িতে বেড়াতে এসেছে।

মাগুরা ২৫০ শয্যা সদর হাসপাতালের জরুরী বিভাগের চিকিৎসক ডা. মসিউর রহমান জানান, সারদার মাথায় ও নাকে আঘাত রয়েছে যে, কারণে তার অবস্থা শংকামুক্ত নয়। পর্যবেক্ষণে রাখা হয়েছে। প্রয়োজনে তাকে চিকিৎসার জন্য অন্যত্র পাঠানো হবে।

সদর থানার ওসি সিরাজুল ইসলাম বলেন, বিষয়টি পুলিশ অবগত হয়েছে। এ ব্যাপারে প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

মানবকণ্ঠ/ডিএইচ