মরিচের ঝাল কমাবে ওজন

মরিচের ঝালমরিচের ঝাল নিয়ে সকল অপকারিতা আমাদের ছোটবেলা থেকে শেখানো হয়। কিন্তু মরিচের ঝালের রয়েছে বেশ কিছু উপকারিতা। জানা গিয়েছে ওজন কমাতেও সাহায্য করে ঝাল মরিচ। তাই মরিচের গুণাবলী জানার পর আপনিও হয়ে যেতে পারেন ঝাল স্বাদের বড় ‘ফ্যান’।

সম্প্রতি অস্ট্রেলিয়ার গবেষকেরা আমেরিকান জার্নাল অফ ক্লিনিকাল নিউট্রিশনে জানান, খাবারে নিয়মিত মরিচ খেলে ইনসুলিনের চাহিদা অনেকটাই কমে যায়। তাই টাইপ টু ডায়াবেটিসে যারা ভুগছেন, তাদের খাবারে মরিচ থাকা উপকারী। সেই সঙ্গে ক্ষুধা কম লাগার কারণে আপনি কম খাবার গ্রহণ করেন এবং মোটাও কম হবেন।

মরিচ খেলে পাকস্থলীর ক্যানসার হয় এই ধারণাও ভুল। মরিচ পাকস্থলীর ঘা হওয়া আটকে নতুন কোষকলা নির্মাণে সাহায্য করে। শুধু তাই নয়, ওই গবেষণায় জানানো হয়েছে, মরিচে যত বেশি ঝাল তা তত উপকারী। কারণ মরিচের বীজে ক্যাপসায়কিন নামে যৌগ থাকে। যা গলার সংক্রমণে বাধা দেয়।

এক নজরে দেখে নেওয়া যাক মরিচের কী কী গুণাবলী রয়েছে:

১. অতিরিক্ত ক্যালোরি কমাতে সাহায্য করে।
২. মরিচ খেলে ভালো ঘুম হয়।
৩. ডায়াবেটিক রোগীদের জন্যে উপকারী।
৪. মরিচ পাকস্থলীতে ক্যানসার হওয়া আটকায়।
৫. যাদের সাইনাসের সমস্যা রয়েছে তারাও কিন্তু মরিচ খেতে পারেন।
৬. খিদে মন্দায় যদি মরিচ খাওয়া যায়, তাহলে তা স্বাদ বদলে সাহায্য করে। এছাড়াও খিদে বাড়ায়।
৭. হার্টে রক্ত সঞ্চালন বাড়িয়ে তুলতে মরিচের ভূমিকা উল্লেখযোগ্য।
৮. অণুচক্রিকার ধ্বংস রোধ করে রক্ত তঞ্চনে সাহায্য করে মরিচ।
৯. ফুসফুসে জমে থাকা কফ-শ্লেষ্মা তাড়াতে পারে মরিচ।

মানবকণ্ঠ/আরএ