ভালোবাসা দিবসকে স্মরণীয় করতে একই পরিবারের ৫ জনের ইসলাম ধর্ম গ্রহণ

বিশ্ব ভালোবাসা দিবসকে স্মরণীয় করতে লক্ষ্মীপুরের রামগঞ্জ উপজেলার ইছাপুর ইউনিয়নের একই পরিবারের পাঁচজন ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করেছেন। বৃহস্পতিবার জেলার সিনিয়র জুড়িসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে গিয়ে এফিডেভিট করে তারা হিন্দু ধর্ম ত্যাগ করে ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করেন। শুক্রবার জুম্মার নামাজের পর তাদের জন্য বিভিন্ন মসজিদে দোয়া করা হয়।

জানা গেছে, শ্রীরামপুর কুরি বাড়ির পলাশ কুরি (৩২) ইসলাম ধর্মের প্রতি আকৃষ্ট হয়ে স্বপরিবারে আদালতে গিয়ে বিধিমোতাবেক নাম পরিবর্তনের মাধ্যমে তার নাম আবদুর রহমান এবং স্ত্রী শিখা রানী কুরির স্থলে সুমাইয়া বেগম, বড় মেয়ে অন্বেষা রানী কুরি স্থলে আয়েশা আক্তার, ছোট মেয়ে উর্সি রানী কুরি স্থলে খাদিজা আক্তার এবং পুত্র আবির চন্দ্র কুরি স্থলে মো. ইব্রাহিম রেখে ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করেন।

আবদুর রহমান জানান, শৈশব থেকেই আমি ইসলাম ধর্মের প্রতি দুর্বল ছিলাম। বিয়ের পর সংসারী জীবনের একপর্যায়ে স্ত্রীর নিকট বিষয়টি প্রকাশ করলে সে আমাকে অনুপ্রাণিত করে। দীর্ঘসময়ে মুসলমানদের রীতিনীতি পর্যালোচনা করে আল্লাহ এবং প্রিয় নবী হযরত মোহাম্মদ (সাঃ) প্রতি বিশ্বাস রেখে বিশ্ব ভালোবাসা দিবসকে স্মরণীয় করে রাখতে ওইদিন স্বপরিবারে হিন্দু ধর্ম ত্যাগ করে ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করি।

তিনি আরো বলেন, এরপর পদ্দা ইলিক্ট্রনিক্সের মালিক আনোয়ার নামে এক মুসলিম ভাই থাকার ব্যবস্থা করে দিয়েছেন এবং থানার এস আই জহির উদ্দিন শুক্রবার বিকেলে হোটেলে আপ্পায়ন শেষে ব্যবসা প্রতিষ্ঠান করে দেয়ার আশ্বাস দিয়েছেন।

ইছাপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান শহিদ উল্যাহ জানান, কিছুদিন পূর্বে তিনি আমাকে ইসলাম ধর্ম গ্রহণের বিষয়ে জানায়। এরপর তাকে আদালতে যাওয়ার পরামর্শ দিই। তার ছেলে মেয়ের লেখাপড়াসহ সব ধরনের সহযোগিতা করবো। এখন তিনি আমার মুসলিম ভাই।

মানবকণ্ঠ/এএম