ভারতে প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ভোট শুরু

ইলেক্টোরাল কলেজের মাধ্যমে ভারতের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ভোট শুরু হয়েছে। সোমবার সময় সকাল ১০টায় ভোট গ্রহণ শুরু হয়। ইলেক্টোরাল কলেজে ৪ হাজার ৮৯৬ জন সদস্য। এর মধ্যে লোকসভায় ৫৪৩ জন, রাজ্যসভায় ২৩৩ জন এবং স্টেট অ্যাসেম্বলির মোট সদস্য ৪ হাজার ১২০ জন। ভোট গ্রহণ শেষে আগামী ২০ জুলাই নয়াদিল্লিতে ভোট গণনা হবে। বিভিন্ন রাজ্যের রাজধানী থেকে নয়াদিল্লিতে ব্যালট বাক্স এনে ভোট গণনা করা হবে।

এবার দু’জন প্রার্থীর মধ্যে লড়াই হবে। এদের মধ্যে একজন বিহারের সাবেক গভর্নর বিজেপির নেতৃত্বাধীন জোট ন্যাশনাল ডেমোক্রেটিক অ্যালায়েন্সের রামনাথ কোবিন্দ। আর অন্যজন লোকসভার সাবেক স্পিকার ইউনাইটেড প্রগ্রেসিভ অ্যালায়েন্সের মীরা কুমার।

অনেকেই বলছেন, রামনাথ কোবিন্দকে মনোনয়ন দিয়ে বিজেপি এই বার্তাই দিতে চাচ্ছে যে, ২০১৯ সালে ভারতের পরবর্তী সাধারণ নির্বাচনে তারা দলিতদের প্রবলভাবে পাশে চায়। বিশেষ করে উত্তর প্রদেশে গত নির্বাচনে বিজেপি অনেকগুলো আসন জিতেছে সেখান থেকে বিরাট সমর্থন আশা করছে আবারও। সেকারণেই তাকে মনোনয়ন দেয়া হয়েছে।

আবার বিরোধী দলগুলোও যখন মীরা কুমারকে তার প্রতিদ্বন্বী হিসেবে নির্বাচন করেছে প্রার্থী করেছে তখন তারাও মনে করেছে, একজন দলিত প্রার্থীকে সমস্ত বিরোধী দল সমর্থন করবে এবং রাজনৈতিক বাধা ততটা দেখা দেবেনা।

এর আগে ১৩ বার প্রেসিডেন্ট নির্বাচন করেছে ভারত। ২০১২ সালের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে প্রেসিডেন্ট হিসেবে নির্বাচিত হয়েছিলেন প্রণব মুখার্জী। তিনি ইউপিএ প্রার্থী ছিলেন। ৭ লাখ ১৩ হাজার ৭৬৩ ভোট পেয়ে তিনি নির্বাচিত হয়েছিলেন।

মানবকণ্ঠ/বিএএফ

Leave a Reply

Your email address will not be published.