ব্রণ থেকে বাঁচতে চান?

ব্রণ ও অ্যাকনির সমস্যা বর্তমানে বেড়েই চলেছে। নারী-পুরুষ, ছেলে-মেয়ে সবাই এই সমস্যায় হতাশাগ্রস্ত। নাক, কপাল, গলা, ঘাড় এমনকি পিঠেও হয়ে থাকে এই ব্রণ। এর কারণে চেহারার লাবণ্য ও সৌন্দর্য নষ্ট হয়ে যায়।

চিকিৎকদের মতে, মানসিক চাপ কিংবা আবহাওয়ার পরিবর্তনের কারণে ব্রণ বা অ্যাকনি হয়ে থাকে। অনেকেই এই সমস্যা সমাধানের জন্য নানা ধরনের ওষুধ ব্যবহারে পেয়েছেন পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া। তবে জীবনধারা বিষয়ক ওয়েবসাইট বোল্ডস্বাইয়ের এক প্রতিবেদনে কয়েকটি ঘরোয়া উপায়ের কথা তুলে ধরা হয়েছে যেগুলো আপনার মুখের দাগ কমাতে কার্যকর। এগুলো হলো-মধু, লেবুর রস, রসুন, ডিম, টুথপেস্ট ও পানি। ত্বক পরিষ্কার রাখতে মধুর কোনো জুড়ি নেই। ব্রণ বা অ্যাকনির ওপর মধু লাগিয়ে রাখুন। এক ঘণ্টা পর ধুয়ে ফেলুন। এভাবে নিয়মিত চালিয়ে যান। পরিবর্তন আপনি নিজেই টের পাবেন।লেবুর রহসও খুব কার্যকর। সমপরিমাণ লেবুর রসের সঙ্গে গোলাপজল মিশিয়ে মুখে লাগান। এতে খুব সজেই আপনার মুখের ব্রণ বিদায় হবে। রসুন ব্রণ ও অ্যাকনি থেকে বাঁচার আরেকটি উপাদান। অ্যান্টিবায়োটিক হিসেবে রসুনের তুলনা হয় না। একটি রসুনের কোয়া থেঁতলে ব্রণের ওপর ঘুষুন এবং ১০-১৫ মিনিট পর ধুয়ে ফেলুন। ব্রণের দাগের ওপর ডিমের সাদা অংশ লাগিয়ে রেখে দিন। তারপর সেটি শুকাতে দিন। শুকিয়ে গেলে ঠাণ্ডা পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। সপ্তাহে ৪ দিন ব্যবহার করুন। ফল পাবেন নিশ্চয়ই। ব্রণ বা ব্রণের দাগ দূর করার সব থেকে ভালো উপাদান হলো টুথপেস্ট। সারারাত ক্ষতস্থানে টুথপেস্ট লাগিয়ে রাখুন এবং সকালে ধুয়ে ফেলুন। অন্যদিকে, সব সমস্যার প্রতিকার রয়েছে পানিতে। প্রতিদিন ৮ থেকে ১০ গ্লাস পানি পান আপনার ত্বককে রাখবে দাগমুক্ত ও ফ্রেশ।

মানবকণ্ঠ/আরএ