বোমারু মিজানকে শিগগিরই দেশে আনা হবে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

বোমারু মিজানকে শিগগিরই দেশে আনা হবে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

ভারতে গ্রেফতার জেএমবি’র শীর্ষ নেতা মিজান ওরফে জাহিদুল ইসলাম ওরফে বোমারু মিজান ওরফে মুন্নাকে খুব শিগগিরই দেশে আনা হবে বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল। তিনি বলেন, ভারতের সঙ্গে আমাদের আইন রয়েছে। আমাদের মধ্যে বন্দী বিনিময় চুক্তি রয়েছে। ভারতের সঙ্গে কথাবার্তা চলছে। আশাকরি খুব শিগগিরই তাকে দেশে আনা হবে।

শুক্রবার রাজধানীর তেঁজকুনীপাড়ার তার বাসায় হিজরাদের নিয়ে অনুষ্ঠানে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি একথা বলেন।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশ থেকে পালিয়ে ভারতে বিভিন্ন চিহ্নিত সন্ত্রাসীরা আশ্রয় নিয়েছে। তাদের ফেরত আনার ব্যাপারে আমাদের কথাবার্তা চলছে। সন্ত্রাসীদের ফেরত আনার বিষয়টি চলমান। তাদের সেখানে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। ফেরত দেয়ার সম্মত হলে আমরা তাদের ফিরিয়ে নিয়ে আসবো।

হিজড়াদের বিষয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, তারা স্বাভাবিক জীবনে ফিরে আসতে চাইলে আমাদের পক্ষ থেকে সব ধরনের সহযোগিতা করা হবে। তাদের জন্য আমরা একটা রূপরেখা করেছি। তারা আর পার্ক ও রাস্তাঘাটে চাঁদাবাজি করবে না। তবে কোনো বাসায় নতুন সন্তান জন্ম নিলে তার বকশিস গ্রহণ করবে।

উল্লেখ্য, ২০০৫ সালে সারাদেশে বোমা হামলা চালানোর সময় চট্টগ্রামে হামলাগুলোতে নেতৃত্ব দেন এই মিজান। হত্যা মামলায় ফাঁসির দণ্ডপ্রাপ্ত, বিচারাধীন ১৮ মামলার আসামি। মিজান তেজগাঁও পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটের ছাত্র ছিল। তার বাড়ি জামালপুরের মেলান্দহে। ২০১৪ সালের ২৩ ফেব্রুয়ারি ময়মনসিংয়ের ত্রিশালে প্রিজন ভ্যানে হামলা চালিয়ে আরো দুই জঙ্গির সঙ্গে বোমারু মিজানকে ছিনিয়ে নিয়ে যাওয়া হয়। বাকি দুই জঙ্গি ছিলেন মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত সালাউদ্দিন সালেহীন ওরফে সানি ও রাকিবুল হাসান ওরফে হাফেজ মাহমুদ।

মানবকণ্ঠ/এসএস