বৃহস্পতিবার তফসিল ঘোষণায় আওয়ামী লীগের সমর্থন

বৃহস্পতিবার তফসিল ঘোষণায় আওয়ামী লীগের সমর্থন

জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট আপত্তি জানালেও বৃহস্পতিবার একাদশ সংসদ নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করায় সমর্থন জানিয়েছে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ।

সংলাপ চললেও রাজনৈতিক মতবিভেদ জিইয়ে থাকার মধ্যে বৃহস্পতিবার একাদশ সংসদ নির্বাচনের তফসিল দেয়ার ঘোষণা দিয়েছেন সিইসি কে এম নূরুল হুদা।

তার আগের দিন বুধবার নির্বাচন ভবনে গিয়ে সিইসিসহ নির্বাচন কমিশনারদের সঙ্গে দেখা করে নিজেদের অবস্থান জানায় আওয়ামী লীগের একটি প্রতিনিধি দল। ১৬ সদস্যের এই দলের নেতৃত্বে ছিলেন দলের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য এইচ টি ইমাম।

আওয়ামী লীগের আগে বিভিন্ন দল ইসিতে গিয়ে নিজেদের অবস্থান জানিয়ে এসেছে। জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট, বাম গণতান্ত্রিক জোট সংলাপ শেষ না হওয়া পর্যন্ত তফসিল ঘোষণা না করার আহ্বান জানিয়েছে। অন্যদিকে তফসিল না পেছানোর দাবি জানিয়েছে জাতীয় পার্টি ও যুক্তফ্রন্ট।

ইসিতে বৈঠকের পর এইচ টি ইমাম সাংবাদিকদের বলেন, নির্বাচন কমিশন কোনো ধরনের হুমকি বা ভয়ভীতি দেখানো সহ্য করবে না। আমরা দেখেছি সাম্প্রতিক সময়ে বিভিন্ন রাজনৈতিক দল নির্বাচন কমিশনের সঙ্গে আলাপ-আলোচনা করেছে। সবার সঙ্গেই সোহার্দ্যপূর্ণ আলোচনা হলেও জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট নির্বাচন কমিশনকে ভয়ভীতি দেখিয়েছে, হুমকি দিয়েছে।

তিনি বলেন, আমরা দ্ব্যার্থহীনভাবে বলতে চাই নির্বাচন কমিশন এই ধরনের হুমকি বা ভয়ভীতি কোনোভাবেই সহ্য করবে না। বাংলাদেশের জনগণ এই ধরনের আচরণের জবাব ভোটের মাধ্যমে দেবে।

প্রধানমন্ত্রীর এই রাজনৈতিক উপদেষ্টা বলেন, কবে, কখন ও কীভাবে নির্বাচন করবে, তা নির্ধারণ করবে ইসি। ইতিমধ্যেই ইসি ঘোষণা করেছেন বৃহস্পতিবার তফসিল ঘোষণা করবে। আমরা এই সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানাই।

এইচ টি ইমাম আরো বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে একটি স্বাধীন নির্বাচন কমিশন গঠন করেছে আওয়ামী লীগ সরকার। বঙ্গবন্ধুকন্যা স্বাধীন নির্বাচন কমিশনের জন্য আজীবন সংগ্রাম করে এসেছেন। আমরা গর্বের সঙ্গে বলতে পারি নির্বাচন পদ্ধতির আমূল পরিবর্তন করেছে আওয়ামী লীগ সরকার।

এদিন বিকেলে এইচ টি ইমামের নেতৃত্বে নির্বাচন কমিশনের (ইসি) সঙ্গে সংলাপে বসে আওয়ামী লীগের প্রতিনিধিদল। সংলাপে নির্বাচন কমিশনের পক্ষে প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কে এম নুরুল হুদা, অন্য চার কমিশনার ও ইসি সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ উপস্থিত ছিলেন।

আওয়ামী লীগের ১৬ সদস্যের প্রতিনিধিদলে ছিলেন- সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য কর্নেল (অব.) ফারুক খান, উপদেষ্টা পরিষদ সদস্য ড. মসিউর রহমান, রশিদুল আলম, সাংগঠনিক সম্পাদক মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল, দফতর সম্পাদক আবদুস সোবহান গোলাপ, বন ও পরিবেশ সম্পাদক দেলোয়ার হোসেন, উপদফতর সম্পাদক বিপ্লব বড়ুয়া, কার্যনির্বাহী সদস্য এস এম কামাল হোসেন, রিয়াজুল কবীর কাওছার, গোলাম রাব্বানী চিনু, তানভীর ইমাম, ফজিলাতুন্নেছা বাপ্পী প্রমুখ।

মানবকণ্ঠ/এসএস

Leave a Reply

Your email address will not be published.