বুড়িগঙ্গায় নৌকাডুবি: আরো ৪ জনের লাশ উদ্ধার

ঢাকার সদরঘাটে বুড়িগঙ্গায় ডুবে যাওয়া নৌকার আরো চারজন যাত্রীর লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। বাকি একজনের খোঁজে শনিবার তৃতীয় দিনের মতো নদীতে তল্লাশি চালাচ্ছে ফায়ার সার্ভিস, বিআইডব্লিউটিএ ও নৌ পুলিশ।

এদিন সকাল সাড়ে ৭টার দিকে মাহী নামে এক শিশুর লাশ উদ্ধার করা হয়। এরপর দুপুরে দেলোয়ার (২৮) ও তার ছেলে জুনায়েদ (৬ মাস) এবং মাহির বোন মিম (৮) নামে আরো তিনজনের লাশ উদ্ধার করা হয়। গত বৃহস্পতিবার রাতে নৌকাটি ডুবে গেলে ৬জন নিখোঁজ হন।

কেন্দ্রীয় ফায়ার সার্ভিসের নিয়ন্ত্রণ কক্ষের ডিউটি অফিসার মাহফুজ জানান, শনিবার সকাল ৮টার দিকে আহসান মঞ্জিল জাদুঘর বরাবর নদী থেকে মাহির (৮) নামে এক শিশু লাশ পাওয়া যায়। সকাল ৯টা থেকে ফের উদ্ধার অভিযান শুরু হয়। এরপর দুপুরে দেলোয়ার (২৮) ও তার ছেলে জুনায়েদ (৬ মাস) এবং মাহির বোন মিম (৮) নামে আরো তিনজনের লাশ উদ্ধার করা হয়।

সদরঘাট নৌ পুলিশ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আব্দুর রাজ্জাক জানান, সকালে মাহির মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। এরপর দুপুরে আরো ৩ জনের লাশ উদ্ধার করা হয়। এর আগে শুক্রবার বেলা ১২ টার দিকে ভেসে ওঠে শিশুটির ফুফু জামসিদার (২০) লাশ।

প্রসঙ্গত, গত বৃহস্পতিবার রাতে কেরানীগঞ্জে বসবাসকারী শাহজালাল পরিবারের সদস্যদের নিয়ে গ্রামের বাড়ি শরীয়তপুরের বজেশ্বরে যাচ্ছিলেন। এরপর রাত সাড়ে ১০টার দিকে সদরঘাটের কাছে সুরভী-৭ লঞ্চের পেছন দিকের ধাক্কায় শাহজালালদের বহনকারী নৌকাটি ডুবে যায়। এ সময় লঞ্চের পেছনে থাকা পাখার আঘাতে শাহজালালের দুই পা কেটে বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। তাকে উদ্ধার করে পঙ্গু হাসপাতালে পাঠানো হয়।

মানবকণ্ঠ/এএম