বীরাঙ্গনা রমা চৌধুরীর স্বপ্ন স্বপ্নই থেকে গেল

বীরাঙ্গনা রমা চৌধুরীর স্বপ্ন স্বপ্নই থেকে গেলচট্টগ্রামের বোয়ালখালীর নিজ বসতভিটায় ছোট্ট একটি অনাথ আশ্রম গড়ে তোলার ইচ্ছে ছিল ‘একাত্তরের জননী’ খ্যাত বীরাঙ্গনা ও মুক্তিযোদ্ধা রমা চৌধুরীর। যেখানে ঠাঁই হবে সমাজের অসহায় নিপীড়িতদের। যাদের কোলাহল দেখে তিনি ভুলতে পারবেন তার অকালে হারিয়ে যাওয়া তিন সন্তানের বিয়োগ বেদনা।

ভুলতে পারবেন ’৭১এ তার ওপর বয়ে যাওয়া নির্মমতার ব্যথা। না তার সেই ইচ্ছা পূরণ হয়নি। তার আগেই তিনি চলে গেলেন না ফেরার দেশে। চলতি বছরের মার্চে শেষ দিকে একটু সুস্থ হয়ে শেষবারের মত নিজ বসত ভিটায় এসেছিলেন তিনি। আর তখনই এ ইচ্ছের কথা ব্যক্ত করে ৭১ এর বীরাঙ্গনা ও মুক্তিযোদ্ধা রমা চৌধুরী,- এমনটি জানান তার স্বজনেরা।

গত সোমবার (৩ সেপ্টেম্বর) ভোর সাড়ে ৪টার দিকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেছেন তিনি। শেষ ইচ্ছা অনুযায়ী মৃত্যুর পর গতকাল ছেলে দীপংকর টুনুর সমাধির পাশেই তাকে চিরনিদ্রায় শায়িত করা হয়।

এ সময় ‘একাত্তরের জননী’ খ্যাত বীরাঙ্গনা রমা চৌধুরীর একমাত্র জীবিত ছেলে জহর চৌধুরী, রমা চৌধুরীর বইয়ের প্রকাশক আলাউদ্দীন খোকন উপস্থিত ছিলেন।

মানবকণ্ঠ/ডিএইচ