বিশ্বখ্যাত সব ব্র্যান্ডের চশমা নিয়ে বনানীতে ‘বিহী ভিশন কেয়ার’

বিশ্বখ্যাত সব ব্র্যান্ডের চশমা নিয়ে বনানীতে ‘বিহী ভিশন কেয়ার’

বাংলাদেশে প্রথম বারের মতো বিশ্বখ্যাত ব্র্যান্ডের সব চশমার ফ্রেম ও সানগ্লাসের বিপুল কালেকশন নিয়ে যাত্রা শুরুর ঘোষণা দিয়েছে বাংলাদেশ আই হসপিটাল ইনিস্টিটিউট (বিহী) ভিশন কেয়ার ফ্লাগশীপ স্টোর।

বিখ্যাত ব্র্যান্ড থেকে সরাসরি আমদানিকৃত ফ্রেম ও সানগ্লাসের এই ফ্লাগশীপ স্টোরের উদ্বোধন করেন বিশিষ্ট নাট্য ব্যত্তিত্ব ও সংসদ সদস্য আসাদুজ্জামান নূর। এসময় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন- বাংলাদেশস্থ শ্রীলঙ্কার রাষ্ট্রদূত ক্রিসানথী ডি সিলভা। আরো উপস্থিত ছিলেন- বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের সাবেক অধিনায়ক ও বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের পরিচালক আকরাম খান, জাতীয় ক্রিকেট দলের সাবেক সদস্য ও আর্ন্তজাতিক ধারাভাষ্যকার আতাহার আলী খানসহ অনেক গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ।

শ্রীলঙ্কার শীর্ষস্থানীয় আইকেয়ার সামগ্রী সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠান ভিশন কেয়ার ও বাংলাদেশ স্বনামধন্য ও বিশ্বস্থ চক্ষু হাসপাতাল বাংলাদেশ আই হসপিটালের যৌথ উদ্যোগে প্রতিষ্ঠিত বিহী ভিশন কেয়ার ফ্লাগশীপ স্টোরটি বনানীর ৫৭, কামাল আর্তাতুক এভিনিউ’র সুবাস্ত সুরাইয়া ট্রেড সেন্টারে নীচ তলায় অবস্থিত। এই শোরুমে গুচি, বস্, পোলার্ড. মাইকেল কর্স, ভার্সাচি, জজির্য়ো আর্মানী, টম ফোর্ড, কার্টিয়ার, প্রাডা, মন্টব্লঙ্গ, ভোগ, মায় জীম, রে-বান্, কারেরা, সিএইচই, পোলার সানসহ অনেক বিশ্বখ্যাত ব্র্যান্ডের চশমার ফ্রেম ও সান গ্লাসের বিপুল সমাহার রয়েছে।

এছাড়াও রয়েছে ফ্রান্সের বিখ্যাত ইসিলর ব্র্যান্ডের আইওয়্যার লেন্স ও কনট্রাক্ট লেন্স। ইসিলরের ভেরিলাক্স, ক্রিজাল, প্রিভেনসিয়াসহ নামকরা পণ্যের অনেক কালেকশন। ক্রেতা চাহিদার কথা চিন্তা করে হিয়ারিং এইড সামগ্রীর নানা বৈচিত্রময় পণ্যেও সম্ভার রয়েছে বিহী ভিশন কেয়ারে। এখানে বিশ্বমানের প্রতিষ্ঠান ডেনমার্কের ওটিকনের এইড কোম্পানির হেয়ার এইড সামগ্রী রয়েছে যা শ্রবণ প্রতিবন্ধীদের শ্রবণ সমস্যার কার্যকর সমাধান দেবে।

বাংলাদেশ আই হসপিটাল ইনিস্টিটিউট (বিহী) ভিশন কেয়ারের চেয়ারম্যান ডা. মাহবুবুর রহমান চৌধুরী ও ব্যবস্থাপনা পরিচালক দাসান্তাফনসেকা রোহান উপস্থিত গণমাধ্যম কর্মীদের মাধ্যমে সকল শ্রেণী পেশার ক্রেতাদের এই ফ্লাগশীপ স্টোর পরিদর্শন করে বিশ্বখ্যাত ব্র্যান্ডের আসল পণ্য ক্রয়ের আমন্ত্রণ জানান। উদ্বোধন অনুষ্ঠানের সমন্বয় করেন কমিউনিকেটরের স্বত্বাধিকারী মারিয়ামা গাজী নন্দিনী।

মানবকণ্ঠ/এসএস