বিয়ের পর মেয়েরা মোটা হয় কেন?

বিয়ের আগে স্লিম ছিলাম, এই কথাটি বিবাহিত নারীদের মুখে অহরহ শোনা যায়। অধিকাংশ নারীকেই দেখা যায় বিয়ের পরে তারা অস্বাভাবিকভাবে মোটা হয়ে যায়। হঠাৎ এই মোটা হওয়ার কারণ খুঁজতে শুরু করলে বেশ কয়েকটি বিষয় সামনে আসবে।

শারীরিক সম্পর্ক : বিয়ের পরে নারীদের ওজন বাড়ার জন্য কখনোই শারীরিক সম্পর্ক দায়ী নয়। যারা এটি মনে করে আজ থেকে ভুলে যান।এছাড়া বিয়ের পর নারীর স্তন কিংবা নিতম্বের আকার বাড়ে এমনটা সম্পূর্ণ ভুল। ওজন বৃদ্ধির পেছনে যৌনসঙ্গমের কোনো সম্পর্ক নেই।

পুরুষের বীর্জও ওজন বাড়ার কারণ নয় : অনেক নারী ও পুরুষদের ধারণা শারীরিক সম্পর্কের সময় পুরুষের যে বীর্জ নারীর পেটে ঢোকার কারণে শারীরিক পরিবর্তন দেখা দেয়। এটিও ভুল ধারণা। জেনে রাখা ভালো, সঙ্গমের সময় নির্গত বীর্জ পেটে গিয়ে হজম হওয়া কিংবা রক্তে মিশে যাওয়াও সম্ভব নয়। এটির সঙ্গে ওজন বাড়ার কোনো সম্পর্ক নেই।

অনিয়ন্ত্রিত খাদ্যাভ্যাস : বিয়ের আগে নারী ও পুরুষরা নিজের স্বাস্থ্য নিয়ে অনেক বেশি সচেতন থাকে। কিন্তু বিপত্তি এই সময়ে ঘটে যখন বিয়ে হয়ে যায়।পরে হানিমুনসহ বিভিন্ন জায়গায় অতিমাত্রায় ঘোরাফেরা করা হয়। বিয়ের পর দম্পতি যেন সংসার জীবনে নয়, খাওয়ার প্রতিযোগিতায় যোগ দেন। ফলে বেড়ে যায় ওজন।

নিজের প্রতি উদাসী : বিয়ের পরে সংসারিক ব্যবস্তার কারণে নারীরা নিজের প্রতি উদাসীন থাকেন।কিন্তু এটি মোটেই ঠিক নয়। বিয়ে আগে ও পরে একজন নারীর শরীরের প্রতি অবশ্যই যত্নশীল হতে হবে। মনে রাখবেন শরীরে আপনার নিজের প্রয়োজনে নিতে হবে যত্ন।

মানসিক প্রশান্তি ও নিরাপত্তা : শিক্ষাজীবন শেষ করে কর্মজীবনে প্রবেশ। তারপর বিয়ের পিঁড়িতে বসা। এই সময়টা মানুষ অনেক বেশি প্রশান্তি ও নিরাপত্তাবোধ করে। জীবনের এই পর্যায়ে এসে আপনি যদি নিজেকে স্বয়ংসম্পূর্ণ সুখী মানুষ মনে করে থাকেন এ সময় হয়তো ওজন বাড়াটা অস্বাভাবিক কিছু নয়।

একজন ডায়েটিশিয়ান দেখিয়ে ডায়েট চার্ট তৈরি করে নিন এবং ঝটপট ওজন কমাতে সেটা মেনে চলুন। গৃহিণী হলে ঘরেই চেষ্টা করুন পরিশ্রমের কাজগুলো করতে, বসে থেকে আলসেমী ধরতে দেবেন না।

মানবকণ্ঠ/এফএইচ