বিমান ছিনতাই চেষ্টা: ৫ জন বরখাস্ত, প্রত্যাহার ১

বিমান ছিনতাই চেষ্টার ঘটনার সময় বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষ বেবিচকের দুই নিরাপত্তা কর্মকর্তা এবং তিনজন আনসার সদস্যকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। এছাড়া বিমানবাহিনীর এক সার্জেন্টকে প্রত্যাহার করা হয়েছে বলে বেবিচকের জনসংযোগ কর্মকর্তা এ কে এম রেজাউল করিম জানিয়েছেন।

বরখাস্তরা হলেন— সিভিল এভিয়েশনের সিকিউরিটি সুপারভাইজার লেহাজ উদ্দিন ভূঁইয়া, নিরাপত্তারক্ষী ইউনুস হাওলাদার, আনসার সদস্য আলিম হোসেন, মাহফুজুর রহমান ও সাদ্দাম হোসেন। পাশাপাশি বিমান বাহিনীর সার্জেন্ট সাজেদুল ইসলামকে প্রত্যাহার করা হয়েছে।

রেজাউল বলেন, বিমান ছিনতাইচেষ্টার দিন তারা অভ্যন্তরীণ টার্মিনালে দায়িত্ব পালন করছিলেন। দুর্ঘটনায় গঠিত তদন্ত কমিটির কাজকে বেগবান করতে ছয় জনের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে।

গত ২৪ ফেব্রুয়ারি বিকালে ঢাকার শাহজালাল বিমানবন্দর থেকে উড্ডয়নের পর পলাশ আহমেদ নামে এক যুবক ‘খেলনা পিস্তল’ নিয়ে ক্রুদের জিম্মি করেন। দুবাইগামী ওই ফ্লাইটটি এরপর চট্টগ্রাম শাহ আমানত বিমানবন্দরে অবতরণ করলে যাত্রী এবং কেবিন ক্রুরা বাইরে আসার পর কমান্ডো অভিযানে ওই যুবক নিহত হন। বোয়িং ৭৩৭-৮০০ মডেলের উড়োজাহাজটির ঢাকা থেকে চট্টগ্রাম হয়ে দুবাই যাওয়ার কথা ছিল।