বিপুল উৎসাহ ও উদ্দীপনায় গ্রিসে প্রবাসী প্রীতি ফুটবল টুর্নামেন্ট অনুষ্ঠিত

বাংলাদেশ দূতাবাস, এথেন্সের উদ্যোগে নিয়া মানোলাদার প্রবাসী বাংলাদেশি এবং বাংলাদেশ কমিউনিটি ইন গ্রিসের আয়োজনে এই প্রথমবারের মতো গ্রিসের নিয়া মানোলাদায় ২৮ অক্টোবর অনুষ্ঠিত হলো প্রবাসী প্রীতি ফুটবল টুর্নামেন্ট। দূতাবাসের সার্বিক তত্ত্বাবধান ও সহযোগিতায় অনুষ্ঠিত এই টুর্নামেন্টের উদ্বোধন করেন গ্রিসে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত মো. জসীম উদ্দিন। এ উপলক্ষে স্থানীয় প্রশাসনের উচ্চপদস্থ কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

দুর্জয় মানোলাদা টাইগার্স ও দুর্বার এথেন্স টাইগার্স নামে দুটি দল এই টুর্নামেন্টের ফাইনালে অংশগ্রহণ করে। এথেন্স থেকে প্রায় ৩০০ কিলোমিটার দূরে বাংলাদেশি শ্রমিক অধ্যুষিত নিয়া মানোলাদায় অনুষ্ঠিত এই প্রবাসী প্রীতি ফুটবল টুর্নামেন্টকে ঘিরে শুধু প্রবাসী বাংলাদেশি নয়, স্থানীয় গ্রিক জনগণের মধ্যেও ব্যাপক উৎসাহ ও উদ্দীপনা লক্ষ্য করা গেছে।

রাষ্ট্রদূত জসীম উদ্দিন প্রবাসী প্রীতি ফুটবল টুর্নামেন্ট সফলভাবে আয়োজনের জন্য প্রবাসী বাংলাদেশি এবং বাংলাদেশের শুভাকাঙ্ক্ষী গ্রিক নাগরিকসহ সংশ্লিষ্ট সবাইকে আন্তরিক ধন্যবাদ জানান। তিনি আশা প্রকাশ করেন যে, প্রবাসী প্রীতি ফুটবল টুর্নামেন্ট উদ্যোগের মধ্য দিয়ে দুই দেশ আরো কাছাকাছি আসতে সক্ষম হবে। গ্রিক কৃষি খামার মালিকদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, তাদের খামারে কর্মরত প্রবাসী বাংলাদেশিদের তারা যেন নিজের সন্তানতুল্য মনে করে সব সময় তাদের পাশে থাকেন। তাদের কল্যাণে সম্ভাব্য সব রকম সহযোগিতা প্রদান করতে খামার মালিকদের প্রতি রাষ্ট্রদূত অনুরোধ জানান।

তীব্র প্রতিদ্বন্দ্বিতার মধ্য দিয়ে অনুষ্ঠিত ফাইনালে দুর্বার এথেন্স টাইগার্সকে ৫-৩ গোলে পরাজিত করে চ্যাম্পিয়ন হওয়ার গৌরব অর্জন করে দুর্জয় মানোলাদা টাইগার্স। রাষ্ট্রদূত খেলোয়াড়দের হাতে পুরস্কার ও মেডাল তুলে দেন এবং গ্রিসে জীবিকার জন্য অক্লান্ত পরিশ্রমের পাশাপাশি মানসিক স্বাস্থ্য ভাল রাখার স্বার্থে বিভিন্ন ধরনের খেলাধূলার ও সাংস্কৃতিক কার্যক্রমের সঙ্গে নিজেকে যুক্ত রাখতে পরামর্শ দেন। শ্রান্তি-বিনোদনের এ সব আয়োজন শুধু আনন্দ প্রদান নয়, নিজেদের মধ্যে ও গ্রিকদের সঙ্গে সৌহার্দ্যপূর্ণ সম্পর্ক সৃষ্টি এবং ক্ষতিকর কার্যক্রমের সঙ্গে সম্পৃক্ত না হতে কার্যকর ভূমিকা রাখে বলে রাষ্ট্রদূত মত প্রকাশ করেন। তিনি এ আয়োজনের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট সবাইকে আন্তরিক ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন। তিনি প্রবাসীদের এ ধরনের আয়োজনের সঙ্গে সর্বদা পাশে থাকার অঙ্গীকার ব্যক্ত করেন।

তিনি বলেন, প্রবাসীদের শান্তি ও সমৃদ্ধি বর্তমান সরকারের লক্ষ্য। তাদের নিরাপদ ও আনন্দময় জীবন ত্বরান্বিত করবে বাংলাদেশের উন্নয়ন। তিনি সরকারের সব উন্নয়ন কর্মকাণ্ডে প্রবাসী বাংলাদেশিদের একত্রিত হয়ে যোগ দেয়ার জন্য অনুরোধ করেন। প্রধানমন্ত্রীর ২০২১ ও ২০৪১-এর লক্ষ্য বাস্তবায়নে দূতাবাসের সব উদ্ভাবনী কাজের সঙ্গে সর্বতোভাবে যুক্ত থাকার জন্যও রাষ্ট্রদূত উপস্থিত প্রবাসীদের ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন ও ভবিষ্যতে এ ধারা অব্যাহত রাখাসহ প্রবাসীদের বিভিন্ন আঞ্চলিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠনগুলোকে নিজ নিজ উদ্যোগে দেশের প্রতি দায়িত্ব পালনের আহ্বান জানান।

গ্রিস প্রবাসী বাংলাদেশিদের বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক, ব্যবসায়ী, সাংস্কৃতিক, বিভাগ ও অঞ্চলভিত্তিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ, নারী ও শিশুসহ বিপুল সংখ্যক প্রবাসী বাংলাদেশি এই প্রবাসী প্রীতি ফুটবল টুর্নামেন্টের ফাইনাল খেলা উপভোগ করেন। এ ছাড়া পুরস্কার প্রদান অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন দূতাবাসের প্রথম সচিব সুজন দেবনাথ ও দূতাবাসের পক্ষে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন দূতাবাসের কাউন্সেলর (শ্রম) ড. সৈয়দা ফারহানা নূর চৌধুরী।
প্রবাসী প্রীতি ফুটবল টুর্নামেন্টের মধ্য দিয়ে বাংলাদেশ ও গ্রিসের মধ্যে আন্তঃজনগণ সম্পর্ক তথা দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক আরো জোরদার হবে বলে আশা করা যায়।

মানবকণ্ঠ/এফএইচ