বায়ু দূষণরোধে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ জানতে চান হাইকোর্ট

বায়ু দূষণরোধে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ জানতে চান হাইকোর্ট

রাজধানীর বায়ু দূষণরোধে কী কী পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে তা আগামী ১০ এপ্রিলের মধ্যে প্রতিবেদন আকারে দাখিলের নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট। এ সংক্রান্ত রিট আবেদনের শুনানিকালে বুধবার বিচারপতি এফ আর এম নাজমুল আহাসান এবং বিচারপতি কে এম কামরুল কাদেরের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন। পরিবেশ অধিদপ্তরের মহাপরিচালককে নির্দেশ দেয়া হয়েছে। এ ছাড়া ওই দিন পরিবেশ অধিদদপ্তরের মহাপরিচালক জিয়াউল হককে আদালতে হাজির হতে বলা হয়েছে।

আদালতে রিটের পক্ষে শুনানি করেন অ্যাডভোকেট মনজিল মোরসেদ। অন্যদিকে রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল আব্দুল্লাহ আল মাহমুদ বাশার।

এর আগে গত ২৭ জানুয়ারি হাইকোর্টের সংশ্লিষ্ট শাখায় হিউম্যান রাইটস অ্যান্ড পিস ফর বাংলাদেশের পক্ষে রিট আবেদনটি দায়ের করেন অ্যাডভোকেট মনজিল মোনসেদ।

সে রিটের শুনানি নিয়ে গত ২৮ জানুয়ারি রাজধানী ঢাকার বায়ু দূষণ বন্ধে রুল জারি করেন হাইকোর্ট। রুল জারির পাশাপাশি বায়ু দূষণরোধে ব্যবস্থা গ্রহণ করতে অন্তবর্তীকালীন আদেশও দেন। ১৫ দিনের মধ্যে রাজধানীর যেসব এলাকায় উন্নয়ন কর্মকাণ্ড চলছে যেসব এলাকার বিষয়ে দুই সপ্তাহের মধ্যে আদালতকে অবহিত করতে নির্দেশ দেয়া হয়। এ ছাড়া পরিবেশ অধিদপ্তরের মহাপরিচালক ও ঢাকার দুই সিটি কর্পোরেশনের নির্বাহী কর্মকর্তাদেরকে উক্ত আদেশ পালন করে আদালতে প্রতিবেদন দাখিল করতে বলা হয়। যার ধারাবাহিকতা মামলাটি পুনরায় শুনানিকালে আদালত রাজধানী ঢাকার বায়ু দূষণরোধে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ না নেয়ায় হতাশা ও ক্ষোভ প্রকাশ করেন এবং এ বিষয়ে আদেশ দেন।

মানবকণ্ঠ/এসএস

Leave a Reply

Your email address will not be published.