বাস-মাহেন্দ্রের মুখোমুখি সংঘর্ষে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৬

বাস-মাহেন্দ্রের মুখোমুখি সংঘর্ষে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৬

বরিশাল-বানারীপাড়া সড়কের গরিয়ারপাড়ের তেঁতুলতলায় বাস ও মাহেন্দ্রের সংঘর্ষের ঘটনায় আহত পারভীন বেগম (৩৫) নামে আরেক যাত্রী নিহত হয়েছেন। তবে তার শিশুসন্তান তাইয়ুম (৭) হাসপাতালে এখনও চিকিসাধীন। শুক্রবার দুপুরে বরিশাল শেরেবাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন তার মৃত্যু হয়। নিহত পারভীন বাবুগঞ্জ উপজেলার দুর্গাসাগর এলাকার বাসিন্দা বলে জানা গেছে। এ নিয়ে দুর্ঘটনায় মৃতের সংখ্যা ছয়জনে দাঁড়াল।

এর আগে শুক্রবার সকাল সাড়ে ৯টার দিকে বরিশাল-বানারীপাড়া সড়কে এ দুর্ঘটনা ঘটে বলে জানিয়েছেন সদর ফায়ার সার্ভিস অ্যান্ড সিভিল ডিফেন্সের স্টেশন অফিসার মো. ইউনুস আলী।

নিহত আরো পাঁচজন হলেন- ঝালকাঠির বাসিন্দা ও বরিশাল সরকারি ব্রজমোহন কলেজের (বিএম) মাস্টার্সের গণিত প্রথম বর্ষের ছাত্রী শীলা হালদার (২৪), বাকেরগঞ্জের ইউনুস সিকদারের ছেলে ও নগরীর নথুল্লাবাদ এলাকার বাসিন্দা রং মিস্ত্রি মানিক সিকদার (৪০), নগরীর ২৯ নম্বর ওয়ার্ডস্থ কাশিপুর এলাকার এনছাফ আলীর ছেলে অটোরিকশাচালক খোকন (৩৫), বরিশালের কাশিপুরের গণপাড়া এলাকার ইদ্রিস খানের ছেলে মাহেন্দ্রাচালক সোহেল (২৫) ও ৫০ বছর বয়সী এক অজ্ঞাত নারী।

হতাহতদের উদ্ধারকারী ফায়ার সার্ভিস অ্যান্ড সিভিল ডিফেন্সের স্টেশন অফিসার ইউনুস আলী জানান, মাহিন্দ্রটি যাত্রী নিয়ে বানারীপাড়া থেকে বরিশালের উদ্দেশে যাচ্ছিলো। পথে গড়িয়ারপাড় এলাকাধীন তেঁতুলতলা নামক স্থানে স্বরুপকা‌ঠি থে‌কে ব‌রিশালগামী দুর্জয় পরিবহনের একটি বাসের সঙ্গে মাহেন্দ্রর মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে মাহিন্দ্রটি দুমড়েমুচড়ে রাস্তার পাশে পড়ে গেলে ঘটনাস্থলেই কলেজ ছাত্রী শীলার মৃত্যু হয়।

খবর পেয়ে পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিস সদস্যরা ঘটনাস্থলে পৌঁছে আহতদের উদ্ধার করে বরিশাল শেবাচিম হাসপাতালে নিয়ে যান। এসময় জরুরি বিভাগের দায়িত্বরত চিকিৎসক মানিক ও খোকনকে মৃত বলে ঘোষণা করেন। এছাড়া চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান ৫০ বছর বয়সী অজ্ঞাত আরো এক নারী ও মাহিন্দ্রচালক সোহেল। বাকি আহতদের হাসপাতালের বিভিন্ন ওয়ার্ডে ভর্তি রেখে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে।

বরিশাল মেট্রোপলিটন এয়ারপোর্ট থানার ওসি আব্দুর রহমান মুকুল জানান, দুর্ঘটনায় কবলিত বাসটি রাস্তার উপরে পড়ে থাকায় বরিশাল-বানারীপাড়া-স্বরূপকাঠি সড়কে আধা ঘণ্টার মতো যানবাহন চলাচল বন্ধ ছিলো।

পরে ফায়ার সার্ভিসের সহায়তায় বাসটি উদ্ধার করা হলে যানবাহন চলাচল স্বাভাবিক হয়। তবে বাসচালককে খুঁজে পাওয়া যায়নি। দুর্ঘটনা কবলিত বাস ও মাহেন্দ্রা দুই পুলিশের হেফাজতে রয়েছে বলে জানিয়েছেন তিনি।

মানবকণ্ঠ/এসএস