বাসচাপায় ছাত্রের মৃত্যু: বিক্ষোভে সিকৃবির শিক্ষার্থীরা

সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের(সিকৃবি) ছাত্র ঘোরি মোহাম্মদ ওয়াসিম আফনানকে বাস থেকে ‘ধাক্কা দিয়ে ফেলে হত্যার’ প্রতিবাদে ক্লাস-পরীক্ষা বর্জন করে বিক্ষোভ করছে প্রতিষ্ঠানটির শিক্ষার্থীরা। রোববার সকাল ১১টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বিক্ষোভ মিছিল বের করে ওয়াসিমের সহপাঠীরা। পরে দুপুর ১২টার দিকে তারা নগরীর চৌহাট্টায় অবস্থান নিয়ে সড়ক অবরোধ করে রাখেন।

এদিকে হত্যার প্রতিবাদে স্লোগানে প্রকম্পিত হয়ে উঠেছে চৌহাট্টাস্থ পয়েন্ট। প্রতিবাদে কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়সহ বিভিন্ন স্কুল কলেজের ছাত্ররা চৌহাট্টা সড়ক অবরোধ করে রেখেছে। অবরোধে চৌহাট্টার শত শত যানবাহন আটকা পড়েছে।

এ সময় শিক্ষার্থীরা ওয়াসিমের হত্যার প্রতিবাদে আটক বাস চালক ও হেলপারকে দ্রুত বিচারসহ ঘাতক ‘উদার’ পরিবহন বাসের রুট পারমিট বাতিল, লাইসেন্স বাতিলসহ, নিরাপদ সড়কের দাবিতে ফিটনেসবিহীন যানবাহন রাস্তায় চলতে পারবে না বলে হুঁশিয়ারি দেন।

প্রসঙ্গত, ‘ভাড়া নিয়ে কথা কাটাকাটির’ জেরে বাস থেকে ফেলে ওয়াসিম আফনানকে হত্যার অভিযোগ উঠেছে শ্রমিকদের বিরুদ্ধে। শনিবার ঢাকা-সিলেট মহাসড়াকের শেরপুর এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। নিহত ওয়াসিম সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের বায়োটেকনলজি এন্ড জেনেটিক ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের ৪র্থ বর্ষের শিক্ষার্থী ও হবিগঞ্জের নবীগঞ্জ উপজেলার রৌদ্রগ্রামের গোরি মো. আবু জাহেদ মাহমুদের ছেলে।

ওয়াসিমের সহপাঠীদের বরাত দিয়ে সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য মতিয়ার রহমান হাওলাদার বলেন, শনিবার বিকেল ৫টার দিকে ময়মনসিংহ থেকে সিলেটগামী উদার পরিবহনের একটি বাসে নবীগঞ্জের গোপলালবাজার থেকে ওঠেন ওয়াসিম ও তার কয়েকজন সহপাঠী। সিট না পাওয়া ও বাস ভাড়া নিয়ে বাসের সহকারীর সঙ্গে কথা কাটাকাটি হয় তাদের। এরপর তারা শেরপুরে বাস থেকে নামতে চাইলে বাসের হেলপার ওয়াসিমকে বাস থেকে ধাক্কা মেরে ফেলে দেয়। গুরুতর অবস্থায় তাকে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে আসার পথে তার মৃত্যু হয়। ঘটনাকে পরিকল্পিত হ্ত্যা উল্লেখ করে দায়ীদের দৃষ্টান্তমুলক শাস্তি দাবি করেছেন উপাচার্য মতিয়ার রহমান।

মানবকণ্ঠ/এএম