বাঁক এবং ধোঁয়াতে ঘটেছে ভারতের ট্রেন দুর্ঘটনা

বাঁক এবং ধোঁয়ার কারণে ট্রেন চালক কিছু দেখতে পারছিলনা তাই পাঞ্জাবে মারাত্মক দুর্ঘটনা ঘটেছে। বার্তা সংস্থা পিটিআইকে এমনটি জানিয়েছে রেল মন্ত্রণালয়ের এক কর্মকর্তা।

ভারতের পাঞ্জাব রাজ্যের অমৃতসরে দশেরার অনুষ্ঠানে রাবণের কুশপুত্তলিকায় আগুন দেওয়ার সময় শুক্রবার চলন্ত ট্রেনের নীচে পড়ে অন্তত ৬২ জন নিহত হয়েছেন। ওই ধর্মীয় অনুষ্ঠানে এত লোক সমাগম হবার পরেও কেন চালক ট্রেন থামলো না এমন প্রশ্নের জবাবে ওই কর্মকর্তা বলেন, সেখানে অনেক ধোঁয়া ছিল তাই চালক কিছু দেখতে পারছিলনা এবং বাঁকের বিষয়টিকেও তেমন গুরুত্ব না দেয়ায় এমনটা ঘটেছে। তবে যাই হোক উদ্ধারের জন্য রেল মন্ত্রণালয়ের সমস্ত যন্ত্রপাতি সেখানে পাঠানো হয়েছে এবং স্থানীয় প্রশাসনকে আমরা উদ্ধার এবং ত্রাণ দেয়ার কাজে সহায়তা করছি।

তবে দুর্ঘটনাস্থলে ধর্মীয় অনুষ্ঠানের জন্য আগে থেকে কোন রকম অনুমতি নেয়া হয়নি বলে জানান এই কর্মকর্তা। ওই কর্মকর্তা বলেন , এই দশেরার অনুষ্ঠান সম্পর্কে জানতো প্রদেশটির প্রশাসন।  প্রদেশের এক মন্ত্রীর স্ত্রী ওই অনুষ্ঠানে যোগদান করেছিলেন বলে জানান তিনি। এই বিষয়ে ওই কর্মকর্তা বলেন, আমাদেরকে দোষ দেয়া উচিত হবে না কারণ আমাদের কাছ থেকে ওই অনুষ্ঠানের কোন অনুমতি নেয়া হয়নি। এটা স্পষ্টত যে তারা অনধিকার-প্রবেশকারী ছিল এবং স্থানীয় প্রশাসনকে এর দায়ভার নিতে হবে।

প্রসঙ্গত, শুক্রবার ভারতের পাঞ্জাবের অমৃতসরে ট্রেনে কাটা পড়ে ৬২ জন নিহত হন। এ ঘটনায় নিহত প্রত্যেককে ২ লাখ এবং আহতদের ৫০ হাজার ভারতীয় রুপি দেয়ার ঘোষণা দিয়েছে ভারত সরকার।

মানবকণ্ঠ/এআর