বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত প্রতিটি পরিবারকে পুনর্বাসন করা হবে: ত্রাণমন্ত্রী

ত্রাণমন্ত্রীদুর্যোগ মোকাবেলায় সরকারের সব ধরনের প্রস্তুতি এবং বন্যার্তদের জন্য পর্যাপ্ত ত্রাণ সামগ্রী মজুদ রয়েছে, সুতরাং বন্যার্ত একটি মানুষও না খেয়ে মারা যাবে না। বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত প্রতিটি পরিবারকে পুনর্বাসন করা হবে বলেছেন দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রী মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া।

সোমবার সন্ধ্যায় লালমনিরহাটের বন্যা দুর্গত এলাকা পরিদর্শন ও ত্রাণ তৎপরতা পর্যবেক্ষণ করতে এসে লালমনিরহাট জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কমিটির সভায় এসব কথা বলেন তিনি।

মন্ত্রী বলেন, বন্যার পানি নেমে যাচ্ছে। পানি নেমে গেলে তারা ঘরে ফিরে যাবেন। তখন চল্লিশ দিনের কর্মসূচি দিয়ে কাজের ব্যবস্থা করা হবে। ইতোমধ্যে যাদের ঘরবাড়ি নষ্ট হয়ে গেছে পানি নেমে যাওয়ার পরেই তাদের তালিকা তৈরি করে পুনর্বাসন করা হবে।

লালমনিরহাট জেলা প্রশাসক আবুল ফয়েজ মো. আলা উদ্দিন খানের সভাপতিত্বে সভায় আরো বক্তব্য রাখেন, প্রাথমিক ও গণশিক্ষা সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি মোতাহার হোসেন এমপি, সফুরা বেগম রুমী এমপি, জেলা আওয়ামী লীগের সম্পাদক অ্যাড. মতিয়ার রহমান, দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. শাহ কামাল, দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদফতরের মহা-পরিচালক মো. রিয়াজ আহমেদ প্রমুখ।

প্রাথমিক ও গণশিক্ষা সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি মোতাহার হোসেন এমপি বলেন, আওয়ামী লীগ সরকারের সময় যখনই দেশে বড় দুর্যোগ দেখা দিয়েছে, তখনই সরকার অত্যন্ত সাফল্যের সঙ্গে দুর্যোগ মোকাবেলা করতে সক্ষম হয়েছে। বন্যার্তদের পাশে দাঁড়াতে তিনি জেলা প্রশাসনের পাশাপাশি স্থানীয় আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের আহ্বান জানান।

ত্রাণমন্ত্রী মঙ্গলবার জেলার হাতীবান্ধা উপজেলার বিভিন্ন বন্যাকবলিত এলাকা পরিদর্শন করেন এবং ত্রাণ বিতরণ করবেন।

মানবকণ্ঠ/এএস/জেডএইচ