ফিলিপাইনের সাবেক ফার্স্ট লেডির বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি

দুর্নীতির অভিযোগ এনে ফিলিপাইনের সাবেক ফার্স্ট লেডি ইমেলদা মারকসের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেছে দেশটির আদালত। শুক্রবার ফিলিপাইনের আদালত এই রায় দেন। কংগ্রেসে নিজের আসন বাঁচাতে এবং জেল এড়াতে এই রায়ের বিরুদ্ধে আপিল করবে বলে ইমেলদা মারকসের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে। খবর আল জাজিরা’র।

বিশেষ দুর্নীতি বিরোধী আদালত সানদিয়াগানবায়ান ৮৯ বছর বয়সী মারকসকে সুইস ব্যাঙ্কে অবৈধভাবে ২০০ মিলিয়ন ডলার রাখার দায়ে দুর্নীতির ৭টি অভিযোগে ৬ থেকে ১১ বছরের জেল দেয়া হয়। আর তার বিরুদ্ধে আনা অভিযোগগুলো ১৯৭০ সালের। সেই সময় তিনি ম্যানিলা শহরের গভর্নর ছিলেন।

তবে শুক্রবার এই রায় ঘোষণার সময় মারকস এবং তার পক্ষ থেকে কেউ উপস্থিত ছিল না।

তবে মারকসের বিরুদ্ধে এমন রায়ের পর কারো পক্ষ থেকে তেমন কোন প্রতিক্রিয়া জানানো হয়নি। যদিও তার আইনজীবীদের পক্ষ থেকে বলা হচ্ছে যে তিনি এই রায়ের বিরুদ্ধে আপিল করবেন। এদিকে মারকসের বিরুদ্ধে এমন রায়কে স্বাগত জানিয়েছে তার স্বামী ফারডিনান্ড শাসনামলে মার্শাল ল’র বিরোধিতা করে নির্যাতিত হওয়া অনেকেই। এ বিষয়ে ফিলিপাইন মানবাধিকার কমিশনের সাবেক কমিশনার লরেট্টা আন রোসালেস বলেন, আমি এই রায়ের পর লাফাচ্ছিলাম এবং আমার বিশ্বাস হচ্ছিল না।

ইমেলদার মারকসের স্বামী ফারডিনান্ড মারকসকে ১৯৮৬ সালে একটি অভ্যুত্থানের মাধ্যমে ক্ষমতাচ্যুত করা হয়। ১৯৮৯ সালে হাওয়াই দ্বিপে নির্বাসিত অবস্থায় মারা গেলে তার স্ত্রী এবং সন্তানেরা আবার ফিলিপাইনে ফিরে আসেন। বর্তমানে তার পরিবারের সবাই সরকারি কার্যালয়ের কোন না কোন পদে রয়েছেন।

মানবকণ্ঠ/এআর

Leave a Reply

Your email address will not be published.