ফিক্সিংয়ের অভিযোগ, ১০ বছর নিষিদ্ধ জামশেদ

ফিক্সিংয়ের অভিযোগ, ১০ বছর নিষিদ্ধ জামশেদক্রিকেটাঙ্গনে বর্তমানে স্পট ফিক্সিংয়ের ঘটনা খুবই প্রকট হয়ে দাঁড়িয়েছে। একের পর এক বড় ধরনের শাস্তি দিয়েও থামানো যাচ্ছে না ম্যাচ পাতানোর ঘটনা। ফিক্সিংয়ের তকমা লাগানো পাকিস্তান ক্রিকেটেই ঘটছে একের পর এক ঘটনা।

পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (পিসিবি) ম্যাচ পাতানো খেলোয়াড়দের বিরুদ্ধে শক্ত অবস্থান নিয়েছে। সেই ধারাবাহিকতায় পাকিস্তান সুপার লিগে (পিএসএল) ম্যাচ পাতানোর দায়ে ১০ বছরের জন্য সবধরনের ক্রিকেট থেকে নিষিদ্ধ করা হয়েছে দেশটির ওপেনার নাসির জামশেদ।

পিএসএলের ২০১৬-১৭ মৌসুমে ম্যাচ পাতানোর দায়ে অভিযুক্ত হয়েছিলেন বেশ কয়েকজন ক্রিকেটার। যাদের মধ্যে অন্যতম শাহজাইব হাসানকে গত শুক্রবার ৪ বছরের নিষেধাজ্ঞা দিয়েছিল পিসিবি। ঠিক এক সপ্তাহ পর ১০ বছরের নিষেধাজ্ঞা পেলেন জামশেদ।

চলতি বছরের এপ্রিলে নিজের উপরে আসা সকল অভিযোগ অস্বীকার করেছিলেন জামশেদ। ফলে বাধ্য হয়েই পিসিবি চেয়ারম্যান নাজাম শেঠি একটি তিন সদস্যের অ্যান্টি করাপশন ট্রাইবুনাল গঠন করেন। যেখানে ছিলেন সাবেক তিন ক্রিকেট ফজলে মিরান চৌহান, শাহজাইব মাকসুদ ও আকিব জাভেদ। এই ট্রাইবুনালের রায়েই ১০ বছরের জন্য নিষিদ্ধ হলেন জামশেদ।

মানবকণ্ঠ/ডিএই্চ