ফাইনালে মালদ্বীপ-ভারত

ক্রীড়া প্রতিবেদক:
বাংলাদেশের বিদায়ের সঙ্গে সাফ চ্যাম্পিয়নশিপ থেকে দর্শকরাও মুখ ফিরিয়ে নিয়েছেন। বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে দ্বাদশ আসরের দুটি সেমিফাইনালই ছিল কাল। যার একটিতে প্রতিপক্ষ ছিল দুই চির প্রতিদ্বন্দ্বী ভারত-পাকিস্তান। কিন্তু তারপরও মাঠে দর্শক উপস্থিতি ছিল খুবই কম। বাইরে কাউন্টার দামেই টিকিট বিক্রির জন্য হাকডাক ছিল। কিন্তু দর্শকদের আগ্রহ ছিল না। অবশ্য সেমিতে অংশ নেয়া চারটি দেশ ভারত-পাকিস্তান ছাড়াও নেপাল ও মালদ্বীপের বেশ কিছু সংখ্যক দর্শক উপস্থিত ছিলেন। তারা সংখ্যায় কম হলেও নিজ নিজ দেশের পতাকা উড়িয়ে বাদ্যযন্ত্র বাজিয়ে মাঠ গরম রাখার চেষ্টা করেছেন। এরকম পরিবেশে অনুষ্ঠিত দুটি সেমিতে জিতে ফাইনালে উঠেছে মালদ্বীপ ও ভারত। প্রথম সেমিতে মালদ্বীপ ৩-০ গোলে নেপালকে এবং দ্বিতীয় সেমিতে পাকিস্তানকে ৩-১ ব্যবধানে হারিয়ে ফাইনালে উঠে ভারত। ১৫ সেপ্টেম্বর বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে সন্ধ্যা ৭টায় অনুষ্ঠিত হবে ফাইনাল।
যে কোনো আসরে সাধারণত স্বাগতিকদের জন্যই হয় পোয়াবারো। কিন্তু সাফ চ্যাম্পিয়নশিপে ঢাকার মাঠকে নিজেদের বানিয়ে ফেলেছে মালদ্বীপ। ঢাকায় সাফের আসর বসা মানেই মালদ্বীপের ফাইনাল খেলা। এবার নিয়ে তিনবার আসর বসেছে। তিনবারই ফাইনালে মালদ্বীপ। যদিও আগের দু’বার তারা রানার্সআপ হয়েছে। এবার কী করে দেখার বিষয়?
সাফে মালদ্বীপ অনেক শক্তিশালী হলেও এবারের আসরে তারা ফেভারিট ছিল না। ‘বি’ গ্রুপ থেকে রানার্সআপ হয়ে তারা সেমিতে জায়গা করে নিয়েছে ভাগ্যের সহায়তায়। শ্রীলঙ্কার সঙ্গে পয়েন্ট সমান হওয়ার পর দুই দলকে যখন কোনোভাবেই বিভাজন করা সম্ভব হচ্ছিল না, তখন টস করা হয়। যেখানে জয়ী হয়েছিল মালদ্বীপ। কিন্তু সেই মালদ্বীপ কাল ‘এ’ গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন নেপালকে এক কথায় উড়িয়ে দিয়েছে। গ্রুপপর্বে কোনো গোলই করতে না পারা মালদ্বীপ কাল ৩-০ গোলে নেপালকে বিধ্বস্ত করে। নেপাল এ নিয়ে পাঁচবার সাফের সেমি থেকে বিদায় নিল।
মালদ্বীপ ৩-০ গোলে জয়ী হলেও প্রথমার্ধে এগিয়ে ছিল ১-০ গোলে। ৯ মিনিটে দলপতি আকরাম গনি ফ্রি কিক থেকে গোলটি করেছিলেন। এই গোলেই খেলা শেষ হওয়ার পথে ছিল। নেপাল গোল পরিশোধের আপ্রাণ চেষ্টা করে যাচ্ছিল। কিন্তু শেষ ৬ মিনিটে মালদ্বীপ ২ গোল করে তৃপ্তির জয় নিয়েই মাঠ ছাড়ে। ৮৪ ও ৮৭ মিনিটে ইব্রাহিম হাসান ওয়াহেদ গোল দুটি করেন।
দ্বিতীয় সেমিফাইনালে ভারতের পক্ষে মানবীর সিং দুইটি ও সুমিত পাসি একটি এবং পাকিস্তানের পক্ষে হাসান বশির গোল করেন। খেলায় ভারতের লালিয়ানজুয়ালা ও পাকিস্তানের মহসিন আলীকে লাল কার্ড দেখান রেফারি।

Leave a Reply

Your email address will not be published.