ফতুল্লায় অস্ত্র লুট মামলার আসামি ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত : ময়মনসিংহ ও ফেনীতে আরো ২ জনের মৃত্যু

মানবকণ্ঠ ডেস্ক :
নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লায় ‘বন্দুকযুদ্ধে’ পুলিশের অস্ত্র লুট মামলার আসামি নিহত হয়েছে। এ ছাড়া ময়মনসিংহের গফরগাঁওয়ে ও ফেনীর দাগনভূঞায় পুলিশের সঙ্গে পৃথক ‘বন্দুকযুদ্ধে’ আরো দু’জনের মৃত্যু হয়েছে। গতকাল বুধবার ভোরে ও তার আগের দিন এসব বন্দুকযুদ্ধের ঘটনা ঘটে। প্রতিনিধিদের পাঠানো খবর-
নারায়ণগঞ্জ: ফতুল্লার দাপা আলামিন নগর এলাকায় পুলিশের সঙ্গে ছিনতাইকারী দু’গ্রুপের ‘বন্দুকযুদ্ধে’ পারভেজ (৩০) নামে পুলিশের অস্ত্র লুট মামলার এক আসামি নিহত হয়। সে ফতুল্লার দাপা পাইলট স্কুল এলাকার সোবহান মিয়ার ছেলে। পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে ২ রাউন্ড গুলি, একটি বিদেশি রিভলবার ও ৩টি বড় ছোরা উদ্ধার করেছে।
পুলিশের একটি দায়িত্বশীল সূত্র জানায়, মঙ্গলবার রাত ২টায় আলামিন এলাকাতে ছিনতাইকারীদের দু’পক্ষের মধ্যে গোলাগুলির খবর পায় ফতুল্লা থানা পুলিশ। তাৎক্ষণিক পুলিশের একটি টিম ঘটনাস্থলে গেলে ছিনতাইকারীরা পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি ছোড়ে। পুলিশও পাল্টা গুলি ছুড়ে। এতে গুলিবিদ্ধ হয়ে পারভেজ মারা যায়। পারভেজ পুলিশের সোর্স হিসেবেই এলাকাতে পরিচিত। ফতুল্লা মডেল থানার পরিদর্শক মজিবুর রহমান ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেছেন।
ফতুল্লা থানা পুশিল জানায়, গত রোববার রাতে কনস্টেবল সোহেল রানার সঙ্গে থাকা একটি চাইনিজ রাইফেল খোয়া যায়। পরদিন সোমবার বেলা ১১টায় ফতুল্লার দাপা বালুর মাঠের পাশের একটি ডোবার পাশ থেকে রাইফেলটি উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় পুলিশের এসআই সুমন পাল বাদী হয়ে পারভেজসহ ৩ জনকে আসামিীকরে সোমবার রাতেই ফতুল্লা মডেল থানায় মামলা দায়ের করে।
ময়মনসিংহ: ময়মনসিংহের গফরগাঁওয়ে পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ অজ্ঞাত পরিচয়ে এক যুবক (২৯) নিহত হয়েছেন। মঙ্গলবার দিবাগত রাত ৩টার দিকে উপজেলার পাগলা থানার বারইহাটী বটতলা এলাকায় এ ‘বন্দুকযুদ্ধের’ ঘটনা ঘটে বলে দাবি পুলিশের।
গতকাল বুধবার দুপুরে গোয়েন্দা পুলিশের ওসি আশিকুর রহমান এ তথ্য নিশ্চিত করে জানান, ওই এলাকায় গাছের গুঁড়ি ফেলে ডাকাতির সংবাদ পেয়ে ডিবি পুলিশের একটি দল ঘটনাস্থলে যায়। এ সময় পুলিশকে লক্ষ্য করে ডাকাত দলের সদস্যরা গুলি চালায়। পুলিশও পাল্টা গুলি চালালে গুলিবিদ্ধ হয় এক ডাকাত। পরে তাকে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হলে দায়িত্বরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। ওসি আরো জানান, নিহতের পরিচয় পাওয়া যায়নি। ঘটনাস্থল থেকে একটি গাছের গুঁড়ি, চারটি বড় হাসুয়া ও একটি গুলির খোসা উদ্ধার করা হয়েছে বলেও তিনি জানান।
ফেনী : ফেনীর দাগনভূঞায় পুলিশের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে মূছা আলম মাসুদ নামে এক যুবক নিহত হয়েছে। গতকাল বুধবার ভোরে উপজেলার জায়লস্কর ইউনিয়নের খুশিপুর ব্রিজ এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।
দাগনভূঞা থানার ওসি আবুল কালাম আজাদ জানান, গত ৬ মে খুশিপুর গ্রামে চার সন্তানের জননীকে মাসুদ ও তার বন্ধু ছুট্টু ধর্ষণ করে। এ ঘটনায় মঙ্গলবার রাতে পুলিশ তাকে আটক করে। পরে তাকে নিয়ে এ মামলার অপর আসামি ছুট্টুকে ধরতে রাতে খুশিপুর ব্রিজ এলাকায় গেলে মাসুদের লোকজন পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি ছোড়ে। এ সময় পুলিশ আত্মরক্ষার্থে পাল্টা গুলি ছোড়ে। একপর্যায়ে গুলিবিদ্ধ হয় ধর্ষক মাসুদ। পরে দাগনভূঞা উপজেলা সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত ডাক্তার তাকে মৃত ঘোষণা করেন। বন্দুকযুদ্ধে এসআই আবদুর রাহিম, এএসআই মো. ইসমাঈলসহ পুলিশের চার সদস্য আহত হয়েছেন বলেও তিনি জানান।

Leave a Reply

Your email address will not be published.