প্রাথমিকের ল্যাপটপ ক্রয়ে দুর্নীতি অভিযোগে তদন্তে নামছে সংসদীয় কমিটি

প্রাথমিক বিদ্যালয়ের জন্য ৫০ হাজার ল্যাপটপ ক্রয়ে দুর্নীতি ও অনিয়ম হয়েছে কিনা তা তদন্ত করবে সংসদীয় কমিটি। এলক্ষ্যে কমিটির সদস্য আবুল কালামকে আহ্বায়ক করে একটি সাব-কমিটি গঠন করা হয়েছে। সাব-কমিটির অন্য সদস্যরা হলেন- আলী আজম ও মো. ইলিয়াস। এ কমিটিকে দুই মাসের মধ্যে বিষয়টি তদন্ত করে সংসদীয় কমিটিকে প্রতিবেদন দেয়ার নির্দেশনা দেয়া হয়েছে।

জাতীয় সংসদ ভবনে বুধবার অনুষ্ঠিত প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির বৈঠকে এ সাব-কমিটি গঠন করা হয়। কমিটির সভাপতি মো. মোতাহার হোসেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত বৈঠকে কমিটির সদস্য প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী মোস্তাফিজুর রহমান, আ খ ম জাহাঙ্গীর হোসাইন, সামশুল হক চৌধুরী, মো. নজরুল ইসলাম বাবু, মো. আবুল কালাম, আলী আজম এবং উম্মে রাজিয়া কাজল অংশ নেন।

কমিটি সূত্র জানায়, বৈঠকে ল্যাপটপ ক্রয়ে অনিয়মের বিষয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেন কমিটির সদস্যরা। তারা বলেন, আমদানি করা ল্যাপটপ মানসম্মত নয় এবং তা কেনায় দুর্নীতি হয়েছে বলে সমপ্রতি গণমাধ্যমে খবর প্রকাশিত হয়। বিষয়টি সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়কে তদন্ত করে দেখে দ্রুত সমাধান করা উচিত ছিল। তা না হওয়ায় কমিটির সদস্যরা অসন্তোষ প্রকাশ করে সংসদীয় সাব-কমিটি গঠন করে এটি তদন্ত করার দাবি তুলেন। আলোচনার পরিপ্রেক্ষিতে তিন সদস্যের সাব কমিটির গঠণ করে আমদানি করা ৫০ হাজার ল্যাপটপ মানসম্মত কিনা, দরপত্রের শর্তানুসারে এগুলো সরবরাহ হয়েছে কিনা এবং এতে কোনও দুর্নীতি হয়েছে কিনা তা খতিয়ে দেখতে বলা হয়েছে।

এদিকে, সংসদ সচিবালয় জানায়, বৈঠকে সরবরাহ করা মাল্টিমিডিয়া প্রজেক্টর ও ল্যাপটপ চালনা বিষয়ে শিক্ষকদের দীর্ঘমেয়াদি প্রশিক্ষণ দেয়ার সুপারিশ করা হয়। বৈঠকে সংসদীয় স্থায়ী কমিটি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শিক্ষক নিয়োগের জন্য পাবলিক সার্ভিস কমিশনের (পিএসসি) মতো স্বতন্ত্র কমিশন গঠনেরও সুপারিশ করেছে। এছাড়া, কমিটি স্কুল ফিডিং নীতিমালা প্রণয়ন ও প্রাথমিক বিদ্যালয়ের তথ্যভাণ্ডারের (ডাটাবেজ) আওতায় দেশের সব প্রাথমিক বিদ্যালয়কে যুক্ত করার কার্যক্রম দ্রুত সম্পন্ন করা এবং সব প্রাথমিক বিদ্যালয়ে উন্নতমানের প্লাস্টিকের ফার্নিচার সরবরাহের সুপারিশ করে।

বৈঠকে আগামী বছরের জানুয়ারি মাসের মধ্যে শিক্ষার্থী-শিক্ষকের অনুপাত ১ অনুপাত ৪০ করতে প্রয়োজনীয় সংখ্যক শিক্ষক/শিক্ষিকার পদ সৃজন ও প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ২০১৮ সালের এনসিটিবি কর্তৃক বই ছাপানোর কার্যক্রম দ্রুত সম্পন্ন করার সুপারিশ করা হয়।

মানবকণ্ঠ/বিএএফ