প্রধানমন্ত্রী তারুণ্যেরও তরুণ: খালিদ

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার মধ্যে যে তারুণ্য রয়েছে, অনেক তরুণ তার তারুণ্যের কাছে হেরে যাবে বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক এবং নৌ পরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী।

শুক্রবার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলা অনুষদের জয়নুল আর্ট গ্যালারীতে ‘ভ্রমণ ও সুস্থ সাংস্কৃতিক বিকাশে দূর হবে মাদক-সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদের আগ্রাসন’ শীর্ষক আলোকচিত্র প্রদর্শনীর দ্বিতীয় দিনে তিনি এসব কথা বলেন।

সাংবাদিক আহমেদ পিপুলের বাংলাদেশে তোলা এবং বিশ্ব পর্যটক তানভীর অপুর বিভিন্ন দেশে তোলা ২০ ছবি এ প্রদর্শনীতে স্থান পেয়েছে। তিনদিনব্যাপী এ প্রদর্শনী চলবে শনিবার পর্যন্ত।

খালিদ বলেন, তার মধ্যে যে তারুণ্য রয়েছে ৭২ বছর বয়সে অনেক তরুণ তার তারুণ্যের কাছে হেরে যাবে। কাজেই আমরা খুব সৌভাগ্যবান জাতি এবং বাংলাদেশের নাগরিক হিসাবে গর্ব করতে পারি। আমরা এরকম একটা তারুণ্য নির্ভর, সাংস্কৃতিকমনা প্রধানমন্ত্রী আমাদের সাথে আছেন; যিনি প্রত্যেকটি বিষয়ে সঙ্গে সম্পৃক্ত আছে। এমন কোন বিষয় নেই যে, দেশের প্রধানমন্ত্রী যুক্ত নয়। কাজেই আমরা বলতে পারি পৃথিবীর কোন দেশের প্রধানমন্ত্রী এরকম সবকিছুর সঙ্গে যুক্ত আছেন, আমার এই মুহূর্তে জানা নাই। আমাদের প্রধানমন্ত্রী একজন সাংস্কৃতিক কর্মী। তিনি ছবি তোলেন এবং ছবি আঁকেন। ছবি দেখেন।

নৌ পরিবহন মন্ত্রী বলেন, তরুণ প্রজন্মের জন্যই আমরা আমাদের দেশটাকে তৈরি করেছি। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন ‘আগামী প্রজন্মের জন্য আমরা এই দেশটাকে দিয়ে যেতে চাই’। সেটার জন্য দরকার একটা সাংস্কৃতিক বিপ্লব।

মাদক সন্ত্রাস এবং জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে প্রধানমন্ত্রী জিরো টলারেন্স জানিয়ে তিনি বলেন, মাদক-সন্ত্রাস বা জঙ্গিবাদমুক্ত সমাজ গঠনেও ভূমিকা রাখতে পারে আলোকচিত্র।

প্রেস ইন্সটিটিউট অব বাংলাদেশ(পিআইবি) সাবেক পরিচালক অধ্যাপক আবদুস সালামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য রাখেন- ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য অধ্যাপক আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক, সংসদ সদস্য পঙ্কজ দেবনাথ, ঢাবির চারুকলা অনুষদের ডিন অধ্যাপক নিসার হোসেন ও প্রধানমন্ত্রীর উপ প্রেস সচিব আশরাফুল আলম খোকন।

মানবকণ্ঠ/এএম